পরীক্ষামূলক প্রকাশনা - সাইট নির্মাণাধীন

Home > অন্যান্য > নির্বাচনী জোয়ারে ভাসছে রাজশাহীর আদালত পাড়া

নির্বাচনী জোয়ারে ভাসছে রাজশাহীর আদালত পাড়া

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশ বার কাউন্সিল নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজশাহী অ্যাডভোকেট বার সমিতিতে আবারো লেগেছে নির্বচনী হাওয়। আর এ নির্বাচনে ভিন্ন আমেজ তৈরী হয়েছে বিভিন্ন বার ভবনের সেরেস্তা ও আদালত অঙ্গনে। বার কাউন্সিল নির্বাচন মূলত সমগ্র বাংলাদেশের অ্যাডভোকেট বার সমিতিতে অনুষ্ঠিত হওয়ায় এই নির্বাচনকে আইনজীবীদের মহা উতসবের সাথে তুলনা করা হয়। আর এ নির্বচনে অংশগ্রহন করেন বাংলাদেশের সর্বোচ্য আদালতের প্রবিণ আইনজীবীগন। শুধুমাত্র আইনজীদের ভোটেই তারা নির্বাচিত হয়ে থাকেন।

বাংলাদেশ বার কাউন্সিল নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পরই জাতীয়তাবাদী আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ তাদের আঞ্চলিক আসন সহ ১৪ সদস্য বিশিষ্ট প্যানেল ঘোষনা করেন যা নিল প্যানেল নামে পরিচিত। অন্যদিকে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ সমর্থিত সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ তাদের প্যানেল ঘোষনা করেন। যা সাদা প্যানেল নামে পরিচিত। এবারের বার কাউন্সিল নির্বাচনে ১৪টি নির্বাচিত আসনের মধ্যে ৭টি সাধারণ আসন এবং ৭টি আঞ্চলিক আসনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। সাধারণ ৭টি আসনের সদস্যরা সমগ্র বাংলাদেশের আইনজীবী ভোটারদের ভোটে নির্বাচিত হন বাকি ১টি করে ৭টি অঞ্চলের হতে ৭টি অঞ্চলে ১জনকরে বাংলাদেশে ৭টি অঞ্চল হতে ৭জন গ্রুপ অঞ্চলিক আসনে নির্বাচিত হবেন। প্রতিটি ভোটার ৮টি করে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন।

তফসিল ঘোষনার পর থেকেই শুরু হয়েছে প্রার্থীদের নির্বচনী প্রচারণ। প্রায় দেড়-মাস ধরে দেশের বিভিন্ন জেলার বার সমিতি গুলোতে ছুটছেন ভোট প্রত্যাশী আইনজীবীগন। এছাড়াও দেশের প্রতিটি অ্যাডভোকেট বারে তাদের পক্ষে প্রচারণা চালাতে দেখা যায় ওই প্যানেল সমর্থকদের। প্রতি দিন সকাল থেকেই নির্বাচনী প্রচারন শুরু হয়। কখনো পছন্দের নির্দিষ্ট প্রার্থীর জন্য আবার কখনো পছন্দের প্যানেলভূক্ত প্রার্থীদের জন্য। তবে মূল প্রচারণা শুরু হয় দুপুর ১২টার পর থেকে। বাংরাদেশ বার কাউন্সিলের আওতাধীন৬৪টি জেলার আসন ছাড়াও কিছু অতিরিক্ত বার সমিতি রয়েছে। যেগুলোকে চৌকিবার বলা হয়ে থাকে। এ বার সমিতি গুলোতেও একই সাথে নির্বাচ অনুষ্ঠিত হচ্ছে বলে জানা যায়।

বাংলাদেশ বার কাউন্সিল নির্বাচন সম্পর্কে জানতে চাইলে রাজশাহী অ্যাডভোকেট বার সমিতির প্রশাসনিক কর্মকর্তা ফিরোজ আহমেদ জানান, নির্বাচনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। আগামী ১৪ মে সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। ইতি মধ্যে বাংলাদেশ বার কাউন্সিল হতে রাজশাহী জেলা জজ আদালতের দজন বিচারককে প্রিজাইডিং অফিসার নিয়োগ করেছেন। এবং তাদের মাধ্যমে সকল নির্বাচনী সামগ্রী আমাদের নির্বাচন কেন্দ্রে এসে পৌছে গেছে। আশা করি কোন প্রকার অপ্রিতিকর ঘটনা ছাড়াই ভোট গ্রহন সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন হবে।

x

Check Also

সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরলেন ব্যারিস্টার রফিক-উল হক

সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাসায় ফিরলেন সুপ্রিম কোর্টের প্রবীণ আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিক-উল হক। শনিবার (১৭ অক্টোবর) সকালে রাজধানীর মগবাজারের আদ্-দ্বীন হাসপাতাল থেকে তাকে বাসায় নেওয়া হয়। হাসপাতালের জনসংযোগ কর্মকর্তা তরিকুল ইসলাম আকাশ রাইজিংবিডিকে জানান, প্রবীণ ...

ভোট সুষ্ঠু হচ্ছে: মনু

ভোট দেওয়া শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন কাজী মনিরুল ইসলাম মনু ঢাকা-৫ আসনের উপনির্বাচনের ভোট সুষ্ঠু হচ্ছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী মো. কাজী মনিরুল ইসলাম মনু। শনিবার (১৭ অক্টোবর) সকাল ১০টায় ঢাকা আইডিয়াল ...

‘সৌদি রি-এন্ট্রি ভিসার মেয়াদ ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত বাড়ছে’

ঢাকায় সৌদি দূতাবাস ছুটিতে থাকা প্রবাসী কর্মীদের এক্সিট রি-এন্ট্রি ভিসার মেয়াদ আগামী ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত বাড়ছে বলে জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ। এজন্য তাদেরকে ৬ হাজার ৫০০ টাকা করে দিতে হবে। ...

শিরোনামঃ