পরীক্ষামূলক প্রকাশনা - সাইট নির্মাণাধীন

Home > সারাবাংলা > ঈদের ছুটিতে মুখরিত কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত

ঈদের ছুটিতে মুখরিত কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত

কক্সবাজার প্রতিনিধি : ঈদুল আজহার টানা ছুটিতে পর্যটকদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত কক্সবাজার।

ভ্রমণে আসা পর্যটকদের আনন্দ আর হৈ-হুল্লোড়ে মাতোয়ারা সৈকতের সবকটি পয়েন্ট। আর পর্যটকদের সমুদ্র স্নান ও নিরাপদ ভ্রমণ নিশ্চিতে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে দাবি লাইফ গার্ড ও ট্যুরিস্ট পুলিশের।

শুক্রবার সকাল ৮টা। কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্ট। দেখা যায়, ঈদের টানা ছুটিতে পর্যটকদের পদচারণায় কানায় কানায় পূর্ণ সাগর তীরের এই পয়েন্টটি।

শুধু সুগন্ধা পয়েন্ট নয়, সমুদ্র সৈকতের বাকি ৬টি পয়েন্টরও একই দৃশ্য। ঘুরতে আসা হাজার হাজার পর্যটক এখন মাতোয়ারা সমুদ্র সৈকতে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ছুটে আসা পর্যটকরা আনন্দ আর হৈ-হুল্লোড়ে মেতে উঠেছেন। শিশু থেকে শুরু করে বৃদ্ধ সব বয়সের মানুষের মিলনমেলায় পরিণত হয়েছে সাগরের তীর। সমুদ্র সৈকতে স্নান, ঘুরে বেড়ানো, ছবি তোলা, বিচ বাইক ও জেড স্কিতে কাটছে তাদের প্রতিটি মুহূর্ত।

সৈকতে সুগন্ধা পয়েন্টে কথা হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল শিক্ষার্থীদের সঙ্গে। তারা জানান, শুক্রবার রাতে গাড়িতে উঠে সকাল ৮টায় কক্সবাজার পৌঁছায়। এরপর হোটেলে ব্যাগগুলো রেখে দলবেধে সবাই সমুদ্র সৈকতে ছুটে আসে।

তারা বলেন, ‘সমুদ্র গোসল, দৌড়াদৌড়ি ও বালি নিয়ে বন্ধুরা সবাই হৈ-হুল্লোড়ে মেতে উঠেছি। খুবই ভাল লাগছে।’

মানিকগঞ্জ থেকে আসা রিয়াদ-রোহানা দম্পতি বলেন, ‘ঈদের পরদিনই কক্সবাজার ছুটে আসি। গত ২দিন ধরে রামুর বৌদ্ধ বিহার, ইনানি সৈকত, হিমছড়ির ঝর্ণা ও পাহাড় দেখেছি। এখন সবাই মিলে কক্সবাজার সৈকতে আনন্দ করছি।’

লাবণী পয়েন্টে ইসমাইল-জিকু দম্পতি বলেন, ‘ঈদুল আজহার টানা ছুটি পেয়ে কক্সবাজার ছুটে আসা। কক্সবাজারের বিশাল সাগর আর মুক্ত হাওয়ায় ঘুরে বেড়ানোর মজাই আলাদা।’

ঢাকার মতিঝিল থেকে আসা রামিম, শুক্কুর ও রাইয়্যান বলেন, ‘ঈদের ছুটিতে বন্ধুরা সবাই কক্সবাজারে বেড়াতে চলে আসলাম। সবাই খুবই উপভোগ এই ছুটিটা।’

তবে এখন আবহাওয়া অনুকূলে না থাকায় সাগর রয়েছে উত্তাল। তাই ঈদের ছুটিতে আসা বিপুলসংখ্যক ভ্রমণ পিপাসু সৈকতে গোসল করতে গিয়ে যাতে দুর্ঘটনায় না পড়ে সেজন্য সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করছে সি-সেইভ লাইফ গার্ড ও ইয়াছিন লাইফ গার্ড সংস্থা।

সি-সেইভ লাইফ সংস্থার ইনচার্জ কামরুল হাসান বলেন, এই সময়টা সাগর উত্তাল থাকে। তাই সবকটি পয়েন্টে লাইফ গার্ড কর্মীরা সকাল ৬ টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করছেন। কারণ ঈদের এই ছুটিতে বিপুলসংখ্যক পর্যটক কক্সবাজারে আগমন ঘটেছে। তাদের সমুদ্র স্নানে যাতে অনাকাঙ্খিত ঘটনা না ঘটে-এজন্য আমরা সজাগ রয়েছি।

ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার জোনের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খন্দকার ফজলে রাব্বী বলেন, লাখো পর্যটকের ঢল নেমেছে সমুদ্র সৈকতের শহর কক্সবাজারে। তাই অল্পসংখ্যক ট্যুরিস্ট পুলিশ দিয়ে পর্যটকদের নিরাপত্তা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। তারপরও যাতে আগত পর্যটকরা নির্বিঘ্নে ঘুরাফেরা করতে পারে, সেজন্য ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

হোটেল মালিক সমিতির দেওয়া তথ্য মতে, ঈদুল আজহার ছুটিতে গত দুদিনে কক্সবাজারে দুই লক্ষাধিক পর্যটক এসেছেন। সব মিলিয়ে আগামী শনিবার পর্যন্ত প্রায় ৫ লাখ পর্যটকের সমাগম হবে বলে ধারণা করছেন পর্যটক সংশ্লিষ্টরা।

x

Check Also

না.গঞ্জে অপহৃত কিশোরী উদ্ধার, গ্রেপ্তার ১১

নারায়ণগঞ্জ শহরের ফতুল্লা থানার চাঁনমারি থেকে অপহৃত কিশোরীকে উদ্ধার করেছে র‌্যাব। এ সময় অপহরণে জড়িত সন্দেহে ১১ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। আজ শনিবার (১০ অক্টোবর) দুপুরে র‌্যাব-১১ এর পুলিশ সুপার সুমিনুর রহমান স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ...

গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন: আসামি কালাম কুমিল্লা থেকে গ্রেপ্তার

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন করার ঘটনায় দায়ের করা মামলার অন্যতম আসামি কালামকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১১। বুধবার (০৭ অক্টোবর) রাত ৮টার দিকে র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল খন্দকার সাইফুল আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেন। ...

নোয়াখালীর নির্যাতিতা নারীকে উদ্ধার, মামলার প্রস্তুতি

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের একলাশপুর ইউনিয়নে বিবস্ত্র করে মারধরের পর ভয়ে বাড়ি ছেড়ে চলে যাওয়া নির্যাতিতা নারীকে রোববার (৪ অক্টোবর) রাতে উদ্ধার করেছে পুলিশ। নির্যাতনকারীদের হুমকির পর ভয়ে বাড়ি ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন তিনি। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, ...

শিরোনামঃ