পরীক্ষামূলক প্রকাশনা - সাইট নির্মাণাধীন

Home > সারাবাংলা > মিরপুরে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যায় তিন বখাটে গ্রেপ্তার

মিরপুরে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যায় তিন বখাটে গ্রেপ্তার

কুষ্টিয়া সংবাদদাতা: কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার কাতলামারী গ্রামে স্কুলছাত্রী মুন্নির আত্মহত্যার ঘটনায় স্থানীয় তিন বখাটেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছেন- মিরপুর উপজেলার কাতলামারী রাজপাড়া গ্রামের আনছের আলীর ছেলে মিঠুন (২২), নাসের রাজের ছেলে রাজু (২২) এবং রেজন আলীর ছেলে আঙ্গুর (২৫) । এই তিন অভিযুক্ত বখাটেকে মঙ্গলবার বিকেলে থানা সংলগ্ন এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

জানা যায়, স্থানীয় কে বি এইস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির এইছাত্রীকে দীর্ঘ দু’ বছর ধরেই উত্যক্ত করে আসছিল। গত ২৮ মার্চ বখাটেরা জোরপূর্বক মটর সাইকেলে তুলে নিয়ে বিএডিসি ফার্ম হাউস এলাকায় তার সম্ভ্রমহানির চেষ্টা চালায়। এসময় স্কুলছাত্রীর আর্তচিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে উদ্ধার করেন এবং তিন বখাটেকে আটক করে আমলা ফাঁড়ির পুলিশের হাতে তুলে দেন। কিন্তু ফাঁড়ির ইনচার্জ এএসআই আশরাফুল অভিভাবকদেরকে ডেকে বখাটেদের তাদের হাতে তুলে দেন। অন্যদিকে স্কুলছাত্রীকে স্থানীয় মহিলা ইউপি সদস্যা রেজেলা খাতুনের হাতে তুলে দেন।

ফাঁড়ি থেকে বাড়ি ফেরার সময় ফের বখাটেরা স্কুলছাত্রীকে জোরপূর্বক ছিনিয়ে সেখানের ছাদিমনের বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানেও নির্যাতনের চেষ্টা করে। এসময় ওই বাড়ির লোকজন বাধা দেয় এবং অভিভাবকদের ডেকে স্কুলছাত্রীকে তুলে দেন। সেখান থেকে ফিরে এসেই আত্মহত্যা করে এই স্কুলছাত্রী। আত্মহত্যার পূর্বে বখাটেদের সম্পর্কে বিস্তারিত চিঠি লিখে রেখে যায় ওই ছাত্রী। এ ঘটনায় ছাত্রীর পিতা ৫বখাটের নাম উল্লেখ করে আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে মিরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

গ্রেপ্তারকৃত বখাটেরা এই মামলায় অভিযুক্ত। এই মামলায় অন্য আসামিরা হলেন- হাশেম আলীর ছেলে জয়নাল, আফতার আলীর ছেলে পারভেজ এবং জয়নালের মা হাশেম আলীর স্ত্রী আরোবিয়া খাতুন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে সংশ্লিষ্ট স্কুলের এক শিক্ষক জানান, দীর্ঘ দুই বছর ধরে বখাটেদের অত্যাচারে স্কুলে যাওয়াও প্রায় বন্ধ করে দিয়েছিল ৯ম শ্রেণির এই ছাত্রী। বিষয়টি স্কুলের শিক্ষক শিক্ষার্থীসহ এলাকার অনেকেই জানত। তবুও কেউ এগিয়ে আসেননি কোমলমতি এই স্কুলছাত্রীর জীবন রক্ষায়।

মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম জানান, স্কুলছাত্রী আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে করা মামলার এজাহারভূক্ত আসামি উপজেলার কাতলামারী রাজপাড়া গ্রামের আনছের আলীর ছেলে মিঠুন ও রেজন আলীর ছেলে আঙ্গুরকে মিরপুর থানা এলাকা থেকে গেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামীদের গ্রেপ্তারেও অভিযান চলছে।

x

Check Also

রোহিঙ্গা ডাকাতের সন্ধানে পাহাড়ে র‌্যাবের ড্রোন অভিযান

রোহিঙ্গা ডাকাত আবদুল হাকিমের আস্তানার সন্ধান পেতে শরণার্থী শিবিরের নিকটবর্তী পাহাড়ে ড্রোন দিয়ে অভিযান চালিয়েছে র‌্যাব। শুক্রবার সকাল ৭টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত টেকনাফের বাহারছড়া টইগ্যা পাহাড়সহ বেশ কয়েকটি দুর্গম পাহাড়ে অভিযান চালানো হয়। তবে ...

এক সপ্তাহের মধ‌্যে আপিল করতে হবে আসামিদের

নুসরাত জাহান রাফি হত‌্যায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের আপিলের জন‌্য এক সপ্তাহ সময় দিয়েছেন আদালত। বৃস্পতিবার ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মামুনুর রশিদ এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার পর আসামি পক্ষের আইনজীবী গিয়াস ...

নুসরাত হত‌্যায় ১৬ জনের মৃত‌্যুদণ্ড

বহুল আলোচিত ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত‌্যা মামলার ১৬ আসামির সবারই মৃত‌্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতনদমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মামুনুর রশিদ এই রায় ঘোষণা ...

শিরোনামঃ