পরীক্ষামূলক প্রকাশনা - সাইট নির্মাণাধীন

Home > সারাবাংলা > পুঠিয়ায় জিউপাড়া ইউপির মেম্বারের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

পুঠিয়ায় জিউপাড়া ইউপির মেম্বারের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, পুঠিয়া : রাজশাহীর পুঠিয়ায় জিউপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (মেম্বার) মোঃ জামাল উদ্দিন বিরুদ্ধে অনিয়মের মাধ্যমে তার পরিবারের লোকজনের নামে ২২ টি সরকারী সুবিধা ভোগ করার অভিযোগ উঠেছে। তিনি নিজে মেম্বার হওয়ার সুবাদে চেয়ারম্যান ও সচিব এবং কিছু কর্মকর্তা সহযোগীতায় অনিয়মের মাধ্যমে নিজের পরিবার ও আত্মীয় স্বজনদের নামে ভিজিডি, ভিজিএফ, কর্মসূচি, প্রতিবন্ধি, বয়স্কভাতা, বিধাবাভাতা ও ফেয়ার প্রাইজসহ বিভিন্ন রকম প্রায় ২২ টি সুবিধা ভোগ করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে প্রশাসনের নিকট তদন্ত পূর্বক মেম্বারের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার দাবী করেন এলাকাবাসী।

উপজেলা পরিষদ থেকে প্রাপ্ত বিভিন্ন প্রকল্পের তালিকা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, রাজশাহী জেলার পুঠিয়া উপজেলার ৬ নং জিউপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের ৪ নং ওয়ার্ডের সদস্য (মেম্বার) মোঃ জামাল উদ্দিন তার ছেলে ইউসুফ কর্মসূচির তালিকা নং ৪৭।

মেম্বারের দুলাভাই শফির উদ্দিন কর্মসূচি তালিকা নং ২১ এবং ফেয়ার প্রাইজ তালিকা নং ৫৬৩। মেম্বারের বোন রেনু, স্বামী শফির উদ্দিন ভিজিডি তালিকা নং ১২৯ এবং ভিজিএফ তালিকা নং ৭৬৮। ভাগ্নে সোহেল, পিতা শফির উদ্দিন কর্মসূচির তালিকা নং ২২, ফেয়ার প্রাইজ তালিকা নং ৫৩৭ এবং ভিজিএফ তালিকা নং ৭৬৯। ভাগ্নি সেলিনা, পিতা শফির ভিজিডি তালিকা নং ১৩৩, ভিজিএফ তালিকা নং ৭৯২, ফেয়ার তালিকা নং ৫৫৭।

অপর এক চাচা সমশের ভিজিএফ তালিকা নং ৭২৪ এবং ফেয়ার তালিকা নং ৫০৬। চাচী বাছেনা শমশেরের ১ম স্ত্রী ফেয়ার তালিকা নং ৫০৫। চাচী ইয়াতন শমশেরের ১ম স্ত্রী ভিজিডি তালিকা নং ১৩৮।

মেম্বারের ফুপাতো ভাই আশরাফুল, পিতা মৃত আবুল কাশেম কর্মসূচির তালিকা নং ৪৩, ফেয়ার প্রাইজ তালিকা নং ৪৫, তার স্ত্রী সাথী ভিজিডি তালিকা নং ১০৩। মেম্বারের আরেক চাচা আঃ ছালাম ফেয়ার তালিকা নং ৪৯০।

মেম্বারের আরেক দুলাভাই তমির উদ্দিন, পিতা মৃত আঃ মন্ডল, ফেয়ার তালিকা নং ৫১২। ভাগ্নে-মিনারুল, পিতা তমির উদ্দিন কর্মসূচীর তালিকা নং ৪৫।

ফুবু রুপজান, স্বামী মৃত আবুল কাশেম, বয়স্কভাতা তালিকা নং ২০৫ নামে সরকারী বিভিন্ন সুবিধা ভোগ করে আসছে।

এলাকাবাসীর দাবী মেম্বার হওয়ায় তিনি তার আত্নীয় সজনদের নামে বে-নামে একাধিক প্রায় ২২ টি সুবিধা ভোগ করছে। তাহলে এলাকায় কি তারাই শুধু গরীব আর কেউ নেই? তাই তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ জানান প্রশাসনকে।

সদস্য (মেম্বার) মোঃ জামাল উদ্দিন জানান, মেম্বার হয়েছি বলে কি নিজের আত্নীয় সজনকে দেখবো না। আর আমার বিয়ে হয়েছে অন্য ওয়ার্ডে কিন্তু তার জাতীয় পরিচয়পত্র আমার ওয়ার্ডে তার নাম তালিকায় দেওয়া হয়েছে। তাই তাকে তালিকায় রাখা হয়েছে।

ইউপি চেয়ারম্যান রুহুল আমিন সরকার জানান, আমি নির্বাচনে জয়লাভের পর বিভিন্ন মামলায় বাইরে ছিলাম তাই বিষয়গুলি আমার জানা নাই। আর মেম্বরা যাকে মনোনীত করে তার নামই তালিকায় দেওয়া হয়। আর কারো নাম একাধিক বার আছে কি না আমার জানা নাই। তবে কেউ একাধিক থাকলে তার বিরুদ্ধে প্রশাসনকে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য অনুরোধ করবো।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ওলিউজ্জামান জানান, সরকারী নিয়ম অনুযায়ে এক পরিবারের মাত্র একজন ব্যক্তি একটি মাত্র সুবিধার আওতায় থাকবে। কেউ একাধিক সুবিধা পাওয়ার নিয়ম নাই। আর জিউপাড়া ইউনিয়নের বিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা আছে। তাদের রির্পোট হতে পেলে আমরা আইনগত ব্যবস্থা নেব।

x

Check Also

‘ধানের দাম বেশি, তাই চালেরও’

সপ্তাহের ব্যবধানে দিনাজপুরের হিলির খুচরা ও পাইকারী বাজারে চালের দাম কেজিতে বেড়েছে তিন থেকে চার টাকা। করোনার মধ্যে হঠাৎ করে চালের দাম বেড়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন খেটে খাওয়া ও নিম্ন আয়ের মানুষেরা। মিল মালিকরা বলছেন, ...

সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় ফ্লাড রেজিলিয়েন্স প্রকল্পের করোনা কালিন সহায়তা প্রদান

গত ১৭ জুন ২০২০ তারিখে গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় জুরিখফাউন্ডেশনের অর্থায়নে, কনসার্ন ওয়ার্ল্ডওয়াইড এর সহযোগিতায় এসোড কর্তৃক বাস্তবায়িত ফ্লাড রেজিলিয়েন্স প্রকল্প’র মাধ্যমে উপজেলার দুইটি ইউনিয়নে (তারাপুর ও হরিপুর) এবং পৌরসভায় করোনা কালিন খাদ্য নিরাপত্তা ও ...

হাতিবান্ধা উপজেলায় এসোড ফ্লাড রেজিলিয়েন্স প্রকল্পের করোনা কালিন সহায়তা প্রদান

গত ১৪ ও ১৫ জুন ২০২০ তারিখে লালমনিরহাট জেলার হাতিবান্ধা উপজেলায় জুরিখ ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে, কনসার্ন ওয়ার্ল্ডওয়াইড এর সহযোগিতায় এসোড কর্তৃক বাস্তবায়িত ফ্লাড রেজিলিয়েন্স প্রকল্প’র মাধ্যমে উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নে (গড্ডিমারি, সিন্দুর্ণা,পাটিকাপাড়া, ডাউয়াবাড়ী, সানিয়াজান ও সিঙ্গিমারী) করোনা ...

শিরোনামঃ