পরীক্ষামূলক প্রকাশনা - সাইট নির্মাণাধীন

Home > বাংলাদেশ > অপরাধ > অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ : শুল্ক গোয়েন্দার ব্যাখ্যা

অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ : শুল্ক গোয়েন্দার ব্যাখ্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক : লালমনিরহাটের বুড়িমারী স্থলবন্দরে মামুনুর রশীদ চৌধুরী নামে এক বাংলাদেশি পাসপোর্টধারী যাত্রীর কাছে থেকে অর্থ হাতিয়ে নেওয়া অভিযোগ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন বলে জানিয়েছে শুল্ক স্টেশন কর্তৃপক্ষ।

ওই যাত্রী চিকিৎসা নিতে ভারতে যাওয়ার জন্য গত বৃহস্পতিবার স্থলবন্দরে পৌঁছান। এরপর তার কাছ থেকে দুই লাখ ২৭ হাজার ৯২০ ভারতীয় রূপি হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ করেন মামুনুর রশীদ। বিভিন্ন গণমাধ্যমে এমন অভিযোগ করলে শুল্ক গোয়েন্দার পক্ষ থেকে ওই অভিযোগ অস্বীকার করে ব্যাখ্যা দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে বুড়িমারী শুল্ক স্টেশনের উপকমিশনার রিজভী আহম্মেদ রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘মামুনুর রশিদ একজন প্রতারক বলেই আমার কাছে মনে হয়। তিনি যে অভিযোগ করেছেন তা সত্য নয়। আমার কাছে মনে হয়, সে পেশাদার প্রতারক। তার কাছ থেকে বাংলাদেশ কাস্টমস কোনো ধরনের টাকা-পয়সা রাখেনি। কাস্টমস যা করেছে সবার সন্মুখে করেছে। এ বিষয়ে তার লিখিত বক্তব্য ও ভিডিও ফুটেজ রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা তাকে তল্লাশি করে ছেড়ে দেওয়ার পরে সে ভারতীয় বর্ডারে যায়। সেখান থেকে ফিরে এসে আমাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে। যদি কোনো ধরনের টাকা-পয়সা খোয়া গিয়েও থাকে তা ভারতীয় শুল্ক স্টেশনে হতে পারে। আমাদের শুল্ক স্টেশনে এ ধরনের ঘটনা ঘটেনি। এটা পরিষ্কার।’

এ বিষয়ে রাইজিংবিডিকে পাঠানো লালমনিরহাটের বুড়িমারী শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের কর্মকর্তা এবাদত আলী লিখিত বক্তব্যে বলেছেন, ‘৪ মে দুপুরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায় যে, জনৈক যাত্রী মামুনুর রশিদ চৌধুরী বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা অবৈধভাবে বাংলাদেশ থেকে পাচার করবে। এ সংবাদের ভিত্তিতে ওই যাত্রীকে বুড়িমারী জিরো পয়েন্টে শনাক্ত করা হয়। শনাক্তকৃত যাত্রীকে শুল্ক গোয়েন্দা অফিসে নিয়ে তল্লাশি করে ২ লাখ ২৭ হাজার ৯২০ ভারতীয় রূপি বা তিন হাজার ৪১৮ মার্কিন ডলার পাওয়া যায়। যাত্রী শুল্ক গোয়েন্দার ‍উত্তরে জানায় ভারতে চিকিৎসার জন্য নিকট আত্মীয়, স্বজনদের কাছ থেকে ওই রুপি সংগ্রহ করেছেন। বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্কুলার ও ব্যাগেজ রুল অনুযায়ী বহনকৃত মুদ্রা পাঁচ হাজার মার্কিন ডলারের অনেক কম হওয়ায় যাত্রীর লিখিত বক্তব্য গ্রহণ ও ভিডিও ফুটেজ ধারণপূর্বক ছেড়ে দেওয়া হয়। তবে যাত্রী পাসপোর্ট পর্যালোচনায় দেখা যায়, এই রুট দিয়ে একাধিক বার যাতায়াত করেছেন। যাত্রী চোরাচালান কারবারের সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারেন বলে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা ধারণা করছি, পূর্ব চোরাচালানীর বিরুদ্ধে পণ্য আটকসহ মামলা দায়ের করায় এই চক্রটি শুল্ক গোয়েন্দা কর্মকর্তাকে নাজেহার করার উদ্দেশ্যে অপপ্রচার চালাচ্ছে। এ ধরনের কর্মকাণ্ডের সঙ্গে শুল্ক গোয়েন্দা বা কাস্টমস বিভাগ জড়িত নয় বা হওয়ার সুযোগ নেই।’

এদিকে শুল্ক গোয়েন্দার কাছে টাকাসহ সমুদয় জিনিস বুঝে পেয়েছেন বলে মুচলেকা দিয়েছেন মামুনুর রশিদ। তার সই করা মুচলেকায় দুই লাখ ২৭ হাজার ৯২০ ভারতীয় রুপি থাকার কথা স্বীকার করেছেন। তল্লাশি শেষে শুল্ক গোয়েন্দা কর্তৃপক্ষ জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তার লিখিত বক্তব্য, টাকা এবং কাপড়সহ সমুদয় জিনিসপত্র দিয়ে তাকে ছেড়ে দেওয়া হযেছে বলে মুচলেকায় লেখা রয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার ওই যাত্রী চিকিৎসা নিতে ভারতে যাওয়ার জন্য বুড়িমারী স্থলবন্দরে পৌঁছানোর পর তার কাছে থাকা বাংলাদেশি টাকা ভারতীয় রুপিতে ভাঙিয়ে ভারতীয় স্থলবন্দরে যান।

এরপর মামুনুর রশীদ চৌধুরী বিভিন্ন মিডিয়ায় অভিযোগ করে জানান, ইমিগ্রেশনের সব ধরনের আনুষ্ঠানিকতা শেষে ভারতে যাওয়ার সময় শুল্ক গোয়েন্দা এবাদত আলী তাকে ডেকে নিয়ে যান কাস্টমস অফিসে। সেখানে রাজস্ব কর্মকর্তা মজিবুর রহমানের কক্ষে দিনভর তাকে আটকে রাখা হয়। এসময় তার কাছে থাকা ভারতীয় ২ লাখ ২৭ হাজার ৯২০ টাকা ও একটি স্মার্টফোন কেড়ে নেন রাজস্ব কর্মকর্তা মজিবুর রহমান ও শুল্ক গোয়েন্দা এবাদত আলী। পরে তার কাছ থেকে মুচলেকা লিখে নিয়ে সন্ধ্যা ৬টায় ভারতের চ্যাংরাবান্ধা পার করে দিয়ে আসেন।

তিনি আরো অভিযোগ করে বলেন, ‘আমার ডায়াবেটিকস ও থাইরয়েড চিকিৎসা নিতে বেঙ্গালুর যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এখন টাকার অভাবে চ্যাংরাবান্ধায় পড়ে আছি।’

x

Check Also

প্রশ্ন ফাঁসকারী জঙ্গিদের মতো জঘন্য : র‌্যাব প্রধান

নিজস্ব প্রতিবেদক : পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসকারীদের জঙ্গিদের মতো নিশ্চিহ্ন করা হবে। তারা জঘন্য, এক ধরনের সন্ত্রাসীও বলে মনে করেন র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ। সোমবার দুপুরে র‌্যাব সদর দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিমত ব্যক্ত ...

চারঘাটে নেশার টাকা না পেয়ে পিতা মাতাকে মারপিট ,প্রতিবাদ করায় প্রতিবেশীকে কুপিয়ে হত্যা ,আহত-৫

চারঘাট প্রতিনিধি: রাজশাহীর চারঘাটে নেশার টাকা না পাওয়ায় পিতা মাতাকে মারপিট করে আহত করেছে মাদকাশক্ত যুবক মকছেদ আলী (৩০)। এ সময় প্রতিবাদ করলে হাসুয়া দিয়ে কুপিয়ে খুন করে প্রতিবেশী মৃতঃ সাইফুল ইসলামের স্ত্রী মর্জিনা বেগম ...

স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে গলা কেটে হত্যা

ফেনী সংবাদদাতা : ফেনীর দাগনভূইয়া উপজেলায় স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। নিহত যুবকের নাম ফখরুল উদ্দিন চৌধুরী (৩০)। শনিবার সকালে উপজেলার মাতুভূইয়া বাজার সংলগ্ন মাঠ থেকে তার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত ...

শিরোনামঃ