পরীক্ষামূলক প্রকাশনা - সাইট নির্মাণাধীন

Home > বাংলাদেশ > নির্বাচন > সিইসির পদত্যাগ চায় ঐক্যফ্রন্ট

সিইসির পদত্যাগ চায় ঐক্যফ্রন্ট

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক : প্রধান নির্বাচন কমিশনারের বিরুদ্ধে পক্ষপাতের অভিযোগ তুলে তার পদত্যাগ দাবি করেছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। একই সঙ্গে একজন নির্দলীয় নিরপেক্ষ ব্যক্তিকে অনতিবিলম্বে প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসেবে নিয়োগ করার জন্য রাষ্ট্রপতির কাছে দাবি জানিয়েছে জোটটি।

মঙ্গলবার ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এক বিবৃতিতে এ দাবি জানান।

ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের সঙ্গে প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ অন্য কমিশনার ও সচিবের সঙ্গে সাক্ষাতের প্রসঙ্গ তুলে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আলোচনায় ড. কামাল হোসেনসহ অন্যান্য জাতীয় নেতৃবৃন্দ প্রশাসন ও পুলিশের ক্রমাগত অসহযোগিতা এবং বহু ক্ষেত্রে আক্রমণকারী সরকারি দলের সন্ত্রাসীদের পক্ষে অবস্থান নিয়ে আক্রমণের শিকার বিরোধী দলীয় নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেপ্তার করার বিষয়ে দিন, তারিখ, স্থান উল্লেখ করে অভিযোগ জানান।’

তিনি বলেন, ‘তারা নির্বাচনকালীন সংশ্লিষ্ট প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী প্রতিষ্ঠানসমূহ নিয়ন্ত্রণ ও পরিচালনার ক্ষমতাপ্রাপ্ত নির্বাচন কমিশনকে এসব ব্যাপারে দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানান। একই সঙ্গে যেসব সরকারি ও পুলিশ কর্মকর্তা দলীয় কর্মীর মতো আচরণ করেছে, তাদের নির্বাচনী কর্মকাণ্ড থেকে বিরত রাখার কিংবা অবিলম্বে বদলি করার দাবি জানান। কিন্তু অত্যন্ত ক্ষোভের সাথে আমাদেরকে বলতে হচ্ছে যে, ঐক্যফ্রন্টের নেতৃবৃন্দের যুক্তিগ্রাহ্য ও প্রমাণসিদ্ধ বিষয়গুলোকে অগ্রাহ্য করে প্রধান নির্বাচন কমিশনার ক্ষমতাসীন দলের নেতার ভাষায় অভিযোগগুলোকে অস্বীকার করে পক্ষপাতদুষ্ট ও অসৌজন্যমূলক বক্তব্য দিলে ঐক্যফ্রন্টের নেতৃবৃন্দ শুধু ক্ষুব্ধ নন, বিস্মিত ও হতাশ হন।”

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনের মতো একটি সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান এমন অযৌক্তিক ও দায়িত্বজ্ঞানহীন বক্তব্য দিতে পারে তা অবিশ্বাস্য মনে হয়েছে। এ ঘটনায় স্পষ্টতই প্রমাণ হয়েছে যে, প্রধান নির্বাচন কমিশনার তাকে নিয়োগদানকারী ক্ষমতাসীন সরকারের অতি বাধ্যগত একজন কর্মচারীর চেয়ে আর বেশি কিছু নন। তার নিকট থেকে নির্দলীয়-নিরপেক্ষ নির্বাচন তো দূরের কথা, নিরপেক্ষ আচরণ পাওয়ারও কোনো সম্ভাবনা নেই। এমতাবস্থায় আমরা অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ নির্বাচনের স্বার্থে অবিলম্বে এমন একজন মেরুদণ্ডহীন পক্ষপাতদুষ্ট ব্যক্তির নেতৃত্ব থেকে নির্বাচন কমিশনকে মুক্ত করা অনিবার্য প্রয়োজন বলে মনে করি। আমরা অবিলম্বে তার পদত্যাগ দাবি করছি এবং যথার্থই একজন নির্দলীয় নিরপেক্ষ ব্যক্তিকে অনতিবিলম্বে প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসাবে নিয়োগ করার জন্য মহামান্য রাষ্ট্রপতির নিকট দাবি জানাচ্ছি।’

দেশের বিভিন্ন স্থানে ধানের শীষের প্রার্থী এবং তাদের কর্মীদের ওপর হামলার ঘটনা তুলে ধরে বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘এসব অবস্থার অবসানের জন্যই আমরা আজ নির্বাচন কমিশনে গিয়েছিলাম। কিন্তু প্রধান নির্বাচন কমিশনারই যেহেতু নিরপেক্ষ নির্বাচনে আগ্রহী নয় সেহেতু জনগণকেই আমরা এসব নির্বাচনবিরোধী কার্যকলাপ প্রতিরোধ করে জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি।’

x

Check Also

ঢাকা-১ আসনে সালমাকে সমর্থন বিএনপির

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক : ঢাকা-১ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী সালমা ইসলামকে সমর্থন দিয়েছে বিএনপি। সালমা ইসলাম জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এবং যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম বাবুল তার স্বামী। এই আসনে নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন ...

ফারুকের সমর্থনে সরে দাঁড়ালেন এরশাদ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক : মহাজোটের প্রার্থী আকবর হোসেন খান পাঠান (চিত্রনায়ক ফারুক) এর সমর্থনে ঢাকা-১৭ আসনে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর বারিধারার প্রেসিডেন্ট পার্কে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে প্রাক্তন ...

মোবাইল ব্যাংকিং ৩ দিন বন্ধ রাখার নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে তিন দিন মোবাইল ব্যাংকিং বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। তবে ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট থেকে সর্বোচ্চ ৫ হাজার টাকা লেনদেন করার সুযোগ রাখা হয়েছে। বৃহস্পতিবার নির্বাচন ...

শিরোনামঃ