পরীক্ষামূলক প্রকাশনা - সাইট নির্মাণাধীন

Home > বাংলাদেশ > পরিবেশ > বাংলাদেশ ভারত নেপালে বন্যায় ২৫০ জনের মৃত্যু

বাংলাদেশ ভারত নেপালে বন্যায় ২৫০ জনের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বাংলাদেশ, ভারত ও নেপালে গত কয়েক দিনে ভারি বৃষ্টিপাত এবং এর ফলে সৃষ্ট বন্যা, ভূমিধসে প্রায় ২৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এ তিন দেশে কয়েক লাখ মানুষ বসতবাড়ি ছেড়ে আশ্রয়শিবিরে ঠাঁই নিয়েছে। বন্যাকবিলত মানুষদের উদ্ধারে হিমশিম খাচ্ছে উদ্ধারকর্মীরা।

বাংলাদেশ, ভারত ও নেপালের কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে এবিসি ও সিবিসি নিউজ।

সাম্প্রতিক কয়েক দিনের প্রচণ্ড বৃষ্টিতে ভারতের উত্তরাঞ্চল, নেপালের দক্ষিণাঞ্চল ও বাংলাদেশের অধিকাংশ নদ-নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। নদী-নদীর পানি উপচে গ্রামের পর গ্রাম প্লাবিত হচ্ছে।

নেপালের কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, প্রবল বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে ত্রাণ পৌঁছে দিতে হিমশিম খাচ্ছে তারা। এরই মধ্যে দেশটিতে ১১০ জন মারা গেছে। বানের জলে ভেসে যাওয়া ঘরবাড়ির চালা ও ছাদে আশ্রয় নেওয়া ব্যক্তিদের উদ্ধার করছে উদ্ধারকারীরা। হেলিকপ্টার থেকে তাদের জন্য শুকনো খাবার ফেলা হচ্ছে।

নেপালের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রাম কৃষ্ণ সুবেদী গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, কয়েক লাখ মানুষ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সরকার তাদের কাছে দ্রুত ত্রাণসামগ্রী পৌঁছে দেওয়ার ওপর গুরুত্ব দিচ্ছে। তবে সময়মতো বন্যাকবিলতদের পাশে না পৌঁছানোরও অভিযোগ উঠেছে নেপাল সরকারের বিরুদ্ধে।

নেপালের দক্ষিণাঞ্চলীয় সীমান্তসংলগ্ন ভারতের বিহার রাজ্যের ১৩টি জেলা প্লাবিত হয়েছে। এ রাজ্যে এরই মধ্যে পানিতে ডুবে, ধসে পড়া ঘরের নিচে চাপা পড়ে ও গাছ পড়ে ৪৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। বিহারের স্কুল-কলেজে গড়ে তোলা ২৫০টি অস্থায়ী আশ্রয়শিবিরে প্রায় ২ লাখ মানুষ আশ্রয় নিয়েছে। ভারতীয় সেনাবাহিনী হেলিকপ্টার নিয়ে দুর্গত এলাকায় ত্রাণসামগ্রী, ওষুধ ও বিশুদ্ধ পানীয় জল সরবরাহ করছে।

ভারতের হিমাচল প্রদেশে হিমালয়ের পাদদেশে দুটি বাস ভূমিধসে দুর্ঘটনায় পড়লে নিহত হয় ৪৬ জন। আসাম রাজ্যে বন্যায় মারা গেছে ২১ জন। এ রাজ্যে কয়েক শ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এ ছাড়া ভারতের পশ্চিমবঙ্গেও ভয়াবহ বন্যা হচ্ছে। বেশ কয়েকটি নদীর পানি উপচে গ্রামে প্লাবিত হচ্ছে। যার প্রভাব পড়ছে বাংলাদেশেও।

বাংলাদেশের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র জানিয়েছে, দেশের ১৮টি প্রধান প্রধান নদ-নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। গত তিন দিনের ভারি বৃষ্টিপাত ও বন্যায় প্রায় ৩০ জন মারা গেছে। প্রায় সহস্রাধিক অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্রে ঠাঁই নিয়েছে ৩ লাখ ৬৮ হাজার মানুষ। বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চলে বুধবারও বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে।

x

Check Also

বগুড়ায় বিভিন্ন পয়েন্টে যমুনার পানি বৃদ্ধি, হুমকিতে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ

বগুড়ায় যমুনার পানি ভয়াবহ ভাবে বেড়ে চলায় বিভিন্ন পয়েন্টে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ হুমকির মুখে পড়েছে। সারিয়াকান্দি ও ধুনট উপজেলার অন্তত ১০টি পয়েন্টে বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ দিয়ে পানি ভিতরের অংশে প্রবেশ করছে। এতে এসব এলাকার লোকজন ...

ভারতে সব গেট হঠাৎ খুলে দেয়ায় ডুবে যাচ্ছে বাংলাদেশ !

কুড়িগ্রামে ধরলা নদীর বাঁধ কেন ভেঙে গেছে, তার ব্যাখ্যা দিয়েছেন জেলার পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা। তারা বলেছেন, ইঁদুরের গর্ত আর উইপোকার ঢিবির কারণে বাঁধ দুর্বল হয়ে ভেঙে পড়েছে এবং বানের জলে ভেসে গেছে। তবে স্থানীয়রা ...

ইঁদুরের গর্ত থাকায় ভেঙে পড়েছে কুড়িগ্রামের বাঁধ

ইঁদুরের গর্ত আর উইপোকার ঢিবির কারণে কুড়িগ্রামে ধরলা নদীর ওপর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ দুর্বল হয়ে ভেঙে পড়েছে এবং বানের জলে ভেসে গিয়েছে। জেলার পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা বিবিসিকে জানিয়েছেন, বাঁধের ভেতরের দিকে অসংখ্য ইঁদুরের গর্ত ...

শিরোনামঃ