পরীক্ষামূলক প্রকাশনা - সাইট নির্মাণাধীন

Home > বাংলাদেশ > আইন ও বিচার > ছয় ছাত্র হত্যা মামলায় ম্যাজিস্ট্রেটকে জেরা ৩০ এপ্রিল

ছয় ছাত্র হত্যা মামলায় ম্যাজিস্ট্রেটকে জেরা ৩০ এপ্রিল

নিজস্ব প্রতিবেদক :

সাভারের আমিনবাজারে ডাকাত সন্দেহে ছয় ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা মামলায় প্রাক্তন জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম কাজী শহিদুল ইসলামকে জেরার জন্য আগামী ৩০ এপ্রিল দিন ধার্য করেছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার মামলাটিতে কাজী শহিদুল ইসলামকে জেরার জন্য দিন ধার্য ছিল। কিন্তু এদিন তিনি আদালতে হাজির হতে পারেননি। এজন্য ঢাকার দ্বিতীয় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ রফিকুল ইসলাম পরবর্তী জেরার তারিখ আগামী ৩০ এপ্রিল ঠিক করেছেন। কাজী শহিদুল ইসলাম বর্তমানে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় যুগ্ম-জেলা জজ হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। গত বছর ১৬ নভেম্বর তিনি জবানবন্দি দেন। এরপর ২৬ ফেব্রুয়ারি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণ করা আট আসামির পক্ষে তাকে জেরা করা হয়। আরো চারজনের পক্ষে জেরা বাকি রয়েছে।

মামলাটিতে এ পর্যন্ত অভিযোগপত্রভুক্ত ৯২ সাক্ষীর মধ্যে ৪৬ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেছেন আদালত।

২০১১ সালের ১৭ জুলাই শবেবরাতের রাতে সাভারের আমিনবাজারের বড়দেশী গ্রামের কেবলাচরে ডাকাত সন্দেহে ছয় ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। নিহতরা হলেন, ধানমন্ডির ম্যাপললিফে ‘এ’ লেভেলের ছাত্র শামস রহিম শাম্মাম, মিরপুর সরকারি বাঙলা কলেজের হিসাববিজ্ঞান বিভাগের স্নাতক শ্রেণির দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ইব্রাহিম খলিল, বাঙলা কলেজের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র তৌহিদুর রহমান পলাশ, তেজগাঁও কলেজের ব্যবস্থাপনা প্রথম বর্ষের ছাত্র টিপু সুলতান, মিরপুরে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজির (বিইউবিটি) বিবিএ দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র সিতাব জাবীর মুনিব এবং বাঙলা কলেজের উচ্চমাধ্যমিকে বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র কামরুজ্জামান কান্ত।

নিহতদের সঙ্গে থাকা বন্ধু আল-আমিন গুরুতর আহত হলেও পরে প্রাণে বেঁচে যান। ঘটনার পর কথিত ডাকাতির অভিযোগে বেঁচে যাওয়া আল-আমিনসহ নিহতদের বিরুদ্ধে সাভার মডেল থানায় একটি ডাকাতি মামলা করেন স্থানীয় বালু ব্যবসায়ী আবদুল মালেক। ওই সময় পুলিশ বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা গ্রামবাসীকে আসামি করে সাভার মডেল থানায় আরেকটি মামলা করে।

মামলাটি তদন্ত শেষে ২০১৩ সালের ৭ জানুয়ারি র‌্যাবের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শরীফ উদ্দিন আহমেদ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

২০১৩ সালের ৮ জুলাই ৬০ জনের বিরুদ্ধে এ মামলায় অভিযোগ গঠন করেন আদালত। ওই ঘটনায় বেঁচে যাওয়া একমাত্র ভিকটিম আল-আমিনকে একই ঘটনায় করা ডাকাতি মামলা থেকে সেদিন অব্যাহতি দেওয়া হয়। হত্যা মামলার আসামিদের মধ্যে ছয়জন পলাতক, একজন কারাগারে, ৫২ জন জামিনে ও এক আসামি মারা গেছেন।

এ মামলায় ১৪ আসামি ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

x

Check Also

পাপিয়া-সুমনের বিচার শুরু, সাক্ষ‌্যগ্রহণ ৩১ আগস্ট

যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত নেত্রী শামীমা নূর পাপিয়া ও তার স্বামী মফিজুর রহমান সুমনের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনের মামলায় চার্জ গঠন করেছেন আদালত। রোববার (২৩ আগস্ট) ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ আসামিদের অব্যাহতির ...

ওসি প্রদীপ ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদের মামলা

কক্সবাজারের টেকনাফ থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (সাময়িক বরখাস্ত) প্রদীপ কুমার দাশ ও তার স্ত্রী চুমকীর বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদের মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। রোববার (২৩ আগস্ট) দুদকের চট্টগ্রামের সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে মামলাটি দায়ের করা ...

ইনকিলাব সম্পাদকের বিরুদ্ধে আদালতে সাবেক নৌমন্ত্রী’র মামলা

সাবেক নৌমন্ত্রী শাজাহান খানের পরিবার নিয়ে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করার অভিযোগে রোববার (১৬ আগস্ট) ঢাকা মহানগর হাকিম আবু সাঈদের আদালতে দৈনিক ইনকিলাব পত্রিকার সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন ও কাদেরিয়া পাবলিকেশন্স অ্যান্ড প্রোডাক্টস লিমিটেডের পরিচালক ...

শিরোনামঃ