পরীক্ষামূলক প্রকাশনা - সাইট নির্মাণাধীন

Home > বাংলাদেশ > জলবায়ু প্রশ্নে সুবিচারের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

জলবায়ু প্রশ্নে সুবিচারের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

ডেস্ক রিপোর্ট : জলবায়ু পরিবর্তন প্রশ্নে আইনগতভাবে সম্পাদিত দৃঢ় ও কার্যকর বৈশ্বিক চুক্তিগুলোকে সামনে এনে সুবিচার নিশ্চিত করতে এবং তাদের ঐতিহাসিক দায়িত্ব পালনের জন্য উন্নত দেশগুলোর নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, সুনির্দিষ্টভাবে জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোকে গুরুত্ব দিয়ে অভিযোজন ও প্রশমন কার্যক্রম বাস্তবায়নের লক্ষে দায়ীদেরকে স্থানীয় পর্যায় থেকে শুরু করে আন্তর্জাতিক পর্যায় পর্যন্ত চিহ্নিত করতে হবে।

বুধবার জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭২তম বার্ষিক অধিবেশন উপলক্ষে জাতিসংঘের সদর দপ্তরে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ আয়োজিত পরিবেশ বিষয়ক বেশ্বিক চুক্তি সংক্রান্ত শীর্ষ সম্মেলনে ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের উন্নয়নের অধিকার মোকাবিলায় একটি যথাযথ, ন্যায়সঙ্গত ও টেকসই পদ্ধতি গ্রহণের জন্য উন্নত দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানান।

তিনি জলবায়ু পরিবর্তনজনিত কারণে ক্ষতিগ্রস্ত জনসাধারণ এবং দেশগুলোকে সহযোগিতা করার ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের নৈতিক বাধ্যবাধকতার কথা স্মরণ করিয়ে দেন। তিনি বলেন, পরিবেশ সম্পর্কিত বৈশ্বিক চুক্তি নিয়ে আলোচনার সময় ক্ষতিগ্রস্ত ও দরিদ্র দেশগুলোকে বিবেচনায় নিতে হবে।

শেখ হাসিনা ঐতিহাসিক প্যারিস চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সরে যাওয়ার প্রেক্ষাপটে পরিবেশ সম্পর্কিত বৈশ্বিক চুক্তি সচল রাখার উদ্যোগ নেওয়ার জন্য ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর প্রশংসা করেন।

তিনি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে বাংলাদেশ অন্যতম অধিক ক্ষতিগ্রস্ত একটি দেশ। এই ইস্যু সমাজে শান্তি-স্থিতিশীলতা, সমৃদ্ধি নিশ্চিত করতে ও বৈষম্য নিরসনে বৃহত্তর পরিসরে বিবেচনা করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দৃষ্টান্ত স্থাপন ও অগ্রগামী বাংলাদেশ কর্মে বিশ্বাসী। আমরা উন্নয়নশীল দেশগুলোর মধ্যে প্রথম নিজস্ব সম্পদে জাতীয় জলবায়ু পরিবর্তন তহবিল গঠন এবং জাতীয় জলবায়ু পরিবর্তন কৌশল প্রণয়ন করেছি। প্রতি বছর জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় বাংলাদেশ জিডিপির এক শতাংশেরও বেশি ব্যয় করে।

পরে প্রধানমন্ত্রী বেকম্যান প্যালেসে কমনওয়েলথ দেশগুলোর প্রধানদের এক সংবর্ধনায় যোগ দেন।

সন্ধ্যায় তিনি ম্যাডিসন অ্যাভিনিউতে প্যালেস হোটেলে যুক্তরাষ্ট্র প্রেসিডেন্ট আয়োজিত অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানে যোগ দেন। প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা সজীব আহমেদ ওয়াজেদ অভ্যর্থনায় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন।

তথ্যসূত্র : বাসস

x

Check Also

কোথায় বঙ্গবন্ধুর ৬ খুনি?

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছয় খুনি এখনও পলাতক। এর মধ্যে চারজনের সম্ভাব্য অবস্থান জানা গেলেও দু’জন কোথায় তা নিশ্চিত হতে পারেনি পুলিশ। সম্প্রতি এ বিষয়ে জানতে চাইলে পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, ...

বঙ্গবন্ধুর দাফন করিয়েছিলেন যিনি

বাংলাদেশের মানুষকে স্বপ্ন দেখিয়েছেন তিনি, দিয়েছেন স্বাধীনতা। নিজের মাটিতে দাঁড়িয়ে প্রাণ খুলে নিঃশ্বাস নেয়ার অধিকার দিতে সহ্য করেছেন শত অত্যাচার-নির্যাতন। যুগের পর যুগ শোষিত হয়ে আসা মানুষকে দিয়েছেন মুক্তির স্বাদ। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। ...

চামড়া এখন আবর্জনা !

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক: কোরবানির পশুর চামড়ার দাম না পেয়ে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে অনাকাঙ্ক্ষিত সব ঘটনা ঘটছে। কোথাও সড়কের পাশে চামড়া ফেলে দেয়ার খবর এসেছে, কোথাও মাটিতে চামড়া পুতে ফেলা হচ্ছে। আবার কোথাও চামড়া আবর্জনার মতো ...

শিরোনামঃ