পরীক্ষামূলক প্রকাশনা - সাইট নির্মাণাধীন

Home > বাংলাদেশ > রাজনীতি > খালেদাকে আলাদা থাকার পরামর্শ মতিয়ার

খালেদাকে আলাদা থাকার পরামর্শ মতিয়ার

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিএনপি চেয়ারপারস খালেদা জিয়ার উদ্দেশ্যে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী বলেছেন, আপনি আলাদাই থাকুন। দেশ এগিয়ে যাবে।

বুধবার বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বাংলাদেশ কৃষক লীগ আয়োজিত আলোচনায় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি। ১৫ মার্চ কৃষক হত্যা দিবস উপলক্ষে কৃষক লীগ এ সভার আয়োজন করে।

সরকারের গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপে কৃষক সমাজের উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরে কৃষিমন্ত্রী বলেন, ‘সেরেস পদক’ পয়সা দিয়ে কেনা যায় না। ঘুষ দিয়েও পাওয়া যায় না। এজন্য পরপর তিন বছর দেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হতে হয়। তারপর রেকর্ড দেখে যাচাই-বাছাই শেষে ওই পদক দেয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০০১ এর আগেই সেরেস পদকে ভূষিত হয়েছেন।

২০০১ পরবর্তী বিএনপি শাসনামলের সমালোচনা করে মতিয়া চৌধুরী বলেন, আমরা কৃষকদের কাছে ছিলাম না। আমরা কৃষকদের দুঃখ ও কষ্ট দিয়েছি। এমন একটি কথা কেউ বলতে পারবে না। কথায় আছে, বৃক্ষ তোমার নাম কি ফলে পরিচয়। আমরা সারের দাম ও কৃষি উপকরণকে সহজলভ্য করে প্রমাণ করেছি, আমরা কৃষকের বন্ধু।

তিনি আরো বলেন, আমরা বিএনপির সমালোচনা করতে চাই না। কিন্তু ২০০১ সালে তারা ক্ষমতায় গেছে। তারা যদি সে সময় খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা বজায় রাখতে পারত, তাহলে আমরা বুঝতাম, তারা মোটামুটি কৃষকের পাশে ছিল। কারণ সময় দেশে খাদ্য ঘাটতি ছিল। সেই রাস্তায় তত্ত্বাবধায়ক সরকারও হেঁটেছে।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, সরকার গৃহীত উদ্যোগের ফলে আজকে পাটের ইন্টারন্যাশনাল প্রপার্টি রাইটস (আইপিআর) অন্য কোনো দেশ না, কেবলমাত্র বাংলাদেশে বলেন কৃষিমন্ত্রী।

তিনি আরো বলেন, বিএনপির আমলে তো এই ঘটনাগুলো ঘটে না। কারণ তারা এসব নিয়ে কিছুই ভাবে না। এ বিষয়ে বিএনপি নেত্রীর কাছে কৈফিয়ত দাবি করেন তিনি।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, এখন আবার ক্ষমতায় যাওয়ার স্বপ্ন দেখেন, খুব ভালো কথা। পার্টি করলে ক্ষমতায় যাওয়ার কথা সবাই ভাবতে পারে। কিন্তু কোন সেবাটা আপনার কাছ থেকে বাংলার মানুষ পেয়েছে? কীভাবে দেশ পরিচালনা করতে হয়, সেটা শেখ হাসিনার কাছ থেকে শিক্ষা নেন। বঙ্গবন্ধু তো অনেক উপরে। বঙ্গবন্ধু পারতেন আর আজকে তার কন্যা পারছেন।

তিনি বলেন, আমরা বিনা পয়সায় বই দিতে পারি। নতুন নতুন রেললাইন চালু করতে পারি। কৃষককে বীজ দিতে পারি। কোল্ড স্টোরেজ করে বীজ রাখতে পারি। সেচ ব্যবস্থার উন্নতি করতে পারি কিন্তু আপনরা পারেন না কেন?

কৃষক লীগের সভাপতি মোতাহার হোসেন মোল্লার সভাপতিত্বে আলোচনায় সভায় আরো বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক, খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, কৃষক লীগের সহসভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, সাধারণ সম্পাদক খন্দকার শামসুল হক রেজা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক উম্মে কুলসুম স্মৃতি। সভা পরিচালনা করেন কৃষক নেতা বিশ্বনাথ সরকার বিটু।

x

Check Also

বিএনপির রাজনীতি নতুন করে সাজাতে হবে: টুকু

বিশ্ব রাজনীতির প্রেক্ষাপট বিবেচনা করে বিএনপির রাজনীতিকে নতুন করে সাজাতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু। তিনি বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়া কন্ডিশনাল গৃহবন্দী। তিনি যেদিন জনগণের সামনে বক্তব্য রাখবেন, ...

মেজর সিনহা হত্যার বিচার দাবি

মেজর (অব.) সিনহা হত্যার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন হয়েছে। শনিবার (৮ আগস্ট) নাগরিক ঐক্য ঢাকা মহানগরের উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন নাগরিক ঐক্যের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের আহ্বায়ক মাহবুবুর ...

পাবনা-৪ আসনে জাপার প্রার্থী রেজাউল করিম

পাবনা-৪ আসনের উপ-নির্বাচনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পেয়েছেন মো. রেজাউল করিম। সোমবার (৩১ আগস্ট) দুপুরে রাজধানীর বনানীতে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে পার্টির মনোনয়ন বোর্ডের সভায় সাক্ষাৎকার শেষে মো. রেজাউল করিমকে দলীয় প্রার্থী ঘোষণা করা ...

শিরোনামঃ