পরীক্ষামূলক প্রকাশনা - সাইট নির্মাণাধীন

Home > বাংলাদেশ > রাজনীতি > অং সান সু চির বক্তব্য প্রত্যাখ্যান ১৪ দলের

অং সান সু চির বক্তব্য প্রত্যাখ্যান ১৪ দলের

নিজস্ব প্রতিবেদক : রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে অং সান সু চির বক্তব্য প্রত্যাখ্যান করলেন ক্ষমতাসীন কেন্দ্রীয় ১৪ দলের নেতারা। ১৪ দলের বক্তব্যকে সমর্থন করেছেন বাংলাদেশের সম্মিলিত বৌদ্ধ সমাজ ও হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নেতারা।

বুধবার দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ ও সম্মিলতি বৌদ্ধ সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে ১৪ দলের মতবিনিময় সভায় নেতারা সুচির বক্তব্য প্রত্যাখ্যান করেন।

প্রসঙ্গত, গত ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইনে সেনা ও পুলিশ চৌকিতে রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের হামলার পর থেকে সেখানে চলতে থাকা সেনাবাহিনীর অভিযানে বিশ্বব্যাপী সমালোচনার প্রেক্ষাপটে গত মঙ্গলবার জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন দেশটির নেত্রী অং সান সু চি।

রোহিঙ্গা সংকট মোকাবিলায় পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন ১৪ দলসহ অন্যান্য প্রতিনিধিরা।

১৪ দলের মুখপাত্র ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের জনপদে লাখ লাখ নিরপরাধ নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছেন। তিনি আজকে সারা দুনিয়াকে জাগিয়ে তুলেছেন। সমগ্র বিশ্ব বিবেককে জাগ্রত করেছেন, নির্যাতিত-নিপীড়িত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য। আগামীকাল তিনি জাতিসংঘে ভাষণ দেবেন। আমরা বিশ্বাস করি, তার ভাষণের মধ্যে দিয়ে বিশ্ব বিবেক জেগে উঠবে, নিরপরাধ ও নিরীহ মানুষকে রক্ষা করার জন্য।

সু চির বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানিয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর এই সদস্য আরো বলেন, তিনি(সু চি) আজকে শান্তির নোবেল জয়ী, তিনি কীভাবে নির্যাতনকে আশ্রয়-প্রশ্রয় দিচ্ছেন।

সামরিক বাহিনী মিয়ানমারের নিরীহ মানুষকে হত্যা করেছে বলে দাবি করেন নাসিম। তিনি বলেন, এরা শুধু মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের নয়, তারা বৌদ্ধ ভিক্ষু ও সাধারণ মানুষকেও হত্যা ও নির্যাতন করেছে।

বিশ্ব বিবেক জেগে উঠে মিয়ানমারের ওপর চাপ সৃষ্টি করে এই নিরীহ মানুষকে (রোহিঙ্গা) ফিরিয়ে নিয়ে তাদের দেশে আশ্রয়ের ব্যবস্থা করবে এমন আশাবাদ করেন তিনি।

তিনি বলেন, আমরা চাই বিশ্বের সমস্ত শক্তি আজকে এগিয়ে আসবে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, চীন ও ভারতসহ বিশ্বের বড় শক্তিধর দেশগুলোর প্রতি অনুরোধ জানিয়ে বলেন, আপনারা এগিয়ে আসুন, এই নিরীহ মানুষকে দেশে ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারকে চাপ দিন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে কোনোভাবেই কখনো কোনো সাম্প্রদায়িক শক্তি মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারবে না। অতীতেও কঠোর হস্তে তাদের দমন করা হয়েছে, এখনও দমন করা হবে। আমরা আজকের সভা থেকে আপনাদের এটি আশ্বস্ত করতে চাই।

বৌদ্ধ প্রচার সংঘের সভাপতি সংঘনায়ক সুধানন্দ মহাথেরো বলেন, গতকাল সু চির বক্তব্য শুনে খুব উত্তেজিত হয়ে গেছি। তিনি জানেন না, এটা কীভাবে হতে পারে? দেশের প্রধান যিনি, তাকে দেখতে হবে, জানতে হবে; এই ১০ লাখ রোহিঙ্গারাও মানুষ।

আমাদের দেশে মুসলিম-হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান; আমরা সবাই এদেশের নাগরিক। রোহিঙ্গারা মুসলিম হোক… এরা মানুষ। তাই এই মানুষদের শান্তিপূর্ণভাবে ফিরিয়ে নিতে হবে।

নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের রোহিঙ্গাদের সুস্থভাবে ফিরিয়ে নেওয়ার জোর দাবি করে এই বৌদ্ধ সংঘনায়ক বলেন, এটা আমাদের দাবি। আমাদের তরফ থেকে ২০ জন লোক আমরা মিয়ানমারে যাব। সেখানে গিয়ে সেনাপ্রধান এবং সু চির সঙ্গে দেখা করে অনুরোধ করে আসব।

তিনি আরো বলেন, আমি বিভিন্ন এম্বাসির কাছে চিঠি লিখেছি, এটা অন্যায়, আপনারা সবাই এগিয়ে আসুন। রোহিঙ্গারা মানুষ, এই মানুষদের যথাযথ সম্মান প্রদর্শন করে তাদের দেশে ফিরিয়ে নিতে হবে, তাদের বাসস্থান ফিরিয়ে দিতে হবে।

মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় ১৪ দলের নেতারা ছাড়াও হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নেতারা বক্তব্য রাখেন। ১৪ দলের নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের আহমদ হোসেন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, আমিনুল ইসলাম আমিন, জাসদের শরীফ নুরুল আম্বিয়া, নাজমুল হক প্রধান, ওয়ার্কার্স পার্টির ফজলে হোসেন বাদশা, সাম্যবাদী দলের দিলীপ বড়ুয়া, তরিকত ফেডারেশনের নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী, গণতন্ত্রী পার্টির শাহাদাত হোসেন, ডা. শহিদুল্লাহ শিকদার, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের ড., ওয়াজেদুল ইসলাম, অসিত বরণ রায়, বাসদের রেজাউর রশিদ খান, বৌদ্ধ প্রচার সংঘের সভাপতি সংঘনায়ক সুধানন্দ মহাথেরো, সম্মিলিত বৌদ্ধ সমাজের অশোক বড়ুয়া, পিয়ার বড়ুয়া, কর্নেল (অব.) সুমন বড়ুয়া, রঞ্জিত বড়ুয়া, দীপ্তি বড়ুয়া, বাংলাদেশ বুড্ডিস্ট ফেডারেশনের সভাপতি অসীম রঞ্জন বড়ুয়া, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নিম চন্দ্র ভৌমিক, পূজা উদযাপন পরিষদের তাপস কুমার পাল প্রমুখ।

x

Check Also

ধর্ষণের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ অবস্থান চান রওশন

ধর্ষণের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ অবস্থান দরকার বলে মনে করেন বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ। বুধবার (০৭ অক্টোবর) এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, দেশজুড়ে একের পর এক ধর্ষণ ও নির্যাতনের ঘটনা ঘটছে। সেই সঙ্গে নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক ...

যুবলীগকে মাঠে থাকার নির্দেশ

ঢাকা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর বিজয় নিশ্চিত করতে যুবলীগকে মাঠে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন সংগঠনটির চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ। রোববার (৪ অক্টোবর) বিকেলে রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর নুর কমিউনিটি সেন্টারে যুবলীগ আয়োজিত জরুরি নির্বাচনী সভায় ...

‘আন্দোলনের নামে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড মেনে নেওয়া হবে না’

আন্দোলনের নামে কোনো ধরনের সন্ত্রাস সৃষ্টি, জণভোগান্তি এবং জণমালের ক্ষতি সরকার মেনে নেবে না বলে বিএন‌পিকে সতর্ক করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। রোববার (০৪ অক্টোবর) রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে ত্রাণ ...

শিরোনামঃ