পরীক্ষামূলক প্রকাশনা - সাইট নির্মাণাধীন

Home > বাংলাদেশ > রাজনীতি > সরকারের প্রশ্রয়ে গাড়িবহরে হামলা : মির্জা ফখরুল

সরকারের প্রশ্রয়ে গাড়িবহরে হামলা : মির্জা ফখরুল

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারের প্রশ্রয়ে খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে হামলা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব ইসলাম আলমগীর।

ভবিষ্যতে এই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটবে না প্রত্যাশা করে খালেদা জিয়ার বাকি সফরের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

রোববার সকালে হোটেল লবিতে সাংবাদিকদের দেখতে এসে এই মন্তব্য করেন বিএনপি’র এই মুখপাত্র।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘গাড়িবহরে যারা হামলা করেছে এরা চিহ্নিত। প্রত্যেকের নাম ঠিকানা চলে এসেছে, কারা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে। তাদের ছবি চলে এসেছে। বোঝাই যাচ্ছে এ ঘটনার সঙ্গে সরকারি দলের লোকজন জড়িত।’

তিনি বলেন, ‘আপনি যদি সত্যকে আড়াল করেন সেটা একটা ক্রাইম। তারা (আওয়ামী লীগ) আন্তরিক হলে যারা এই হামলা করেছে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতেন। উল্টো অভিযোগ করা মানে তারা সন্ত্রাসকে প্রশ্রয় দিচ্ছেন, লালন করছেন। তারাই প্রমোট করছে। তারা আপনাদের কর্মী। দায়দায়িত্ব আপনাদের ওপরই যাবে।’

হামলা ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে খালেদা জিয়ার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান মির্জা ফখরুল।

‘আশা করি, বাকি সফর শান্তিপূর্ণ হবে। প্রথম দিনে বলেছি এখনো বলছি। তিনি (খালেদা জিয়া) তিনবারের প্রধানমন্ত্রী, দুইবারের বিরোধী দলীয় নেতা, তার নিরাপত্তা দেওয়া সরকারের দায়িত্বের মধ্যে পড়ে। একজন সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা দেওয়াও তাদের দায়িত্ব। আমরা আশা করি যে ঘটনা ঘটেছে তার পুনরাবৃত্তি যেন না ঘটে। সরকারি দলের কাছে আমরা এ আশা করি।’

ট্রাফিক পুলিশের কর্মকাণ্ডে ‘মোটামুটি সন্তুষ্ট’ হলেও নিরাপত্তার জন্য দায়িত্বরত পুলিশের ভূমিকার কথা উল্লেখ করে হতাশা প্রকাশ করেন মির্জা ফখরুল।

তিনি বলেন, ‘ট্রাফিক পুলিশ মোটামুটি ভালো কাজ করেছে। কিন্তু নিরাপত্তার দায়িত্বে যারা ছিলেন, বিশেষ করে সাংবাদিকদের ওপর যখন হামলা হলো, তখন তো তারা দাঁড়িয়ে থাকলেন। কয়েকটা জায়গায় তাদের উপস্থিতিও দেখা যায়নি। ফেনীতে সেখানকার এসপি-ওসিকে বলেছি আপনারা এগুলো দেখেন। তারা বলেছে, আমরা দেখছি। এমনকি আমরা ঢাকায় আইজিপি সাহেবের সাথে কথা বলেছি। তিনি বলেছিলেন, নিরাপত্তা দেবেন। বহর শান্তিপূর্ণভাবে হবে, আপনারা নিরাপদে যাবেন। কিন্তু হলো না।’

বিএনপি রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে কক্সবাজার যাচ্ছে না জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা এখানে কোনো রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে আসিনি। আমরা ত্রাণ দিতে এবং পর্যবেক্ষণের জন্য এসেছি। মানুষের যে ঢল দেখছেন এটা অর্গানাইজড নয়, কোনো রাজনৈতিক কারণে নয়। মানুষ এমনিতেই উঠে এসেছে। জড়ো হয়েছে।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘খালেদা জিয়ার প্রতি মানুষের স্বতস্ফূর্ত একটা আবেগ আছে। গণতন্ত্র রক্ষার যে আন্দোলন তিনি করে চলেছেন মানুষ তার মধ্যে আন্তরিক প্রচেষ্টা দেখতে পেয়েছেন। সেজন্যই মানুষ তাকে দেখতে চায়। তিনি ক্যারিশমেটিক লিডার।’

x

Check Also

ধর্ষণের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ অবস্থান চান রওশন

ধর্ষণের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ অবস্থান দরকার বলে মনে করেন বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ। বুধবার (০৭ অক্টোবর) এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, দেশজুড়ে একের পর এক ধর্ষণ ও নির্যাতনের ঘটনা ঘটছে। সেই সঙ্গে নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক ...

যুবলীগকে মাঠে থাকার নির্দেশ

ঢাকা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর বিজয় নিশ্চিত করতে যুবলীগকে মাঠে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন সংগঠনটির চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ। রোববার (৪ অক্টোবর) বিকেলে রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর নুর কমিউনিটি সেন্টারে যুবলীগ আয়োজিত জরুরি নির্বাচনী সভায় ...

‘আন্দোলনের নামে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড মেনে নেওয়া হবে না’

আন্দোলনের নামে কোনো ধরনের সন্ত্রাস সৃষ্টি, জণভোগান্তি এবং জণমালের ক্ষতি সরকার মেনে নেবে না বলে বিএন‌পিকে সতর্ক করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। রোববার (০৪ অক্টোবর) রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে ত্রাণ ...

শিরোনামঃ