পরীক্ষামূলক প্রকাশনা - সাইট নির্মাণাধীন

Home > বিনোদন > অপূর্ব-মেহজাবিনকে আলাদাভাবে ধন্যবাদ দিতে চাই : সুবর্ণা মুস্তাফা

অপূর্ব-মেহজাবিনকে আলাদাভাবে ধন্যবাদ দিতে চাই : সুবর্ণা মুস্তাফা

বিনোদন ডেস্ক :
ঈদ উপলক্ষে বরাবরই বিশেষ আয়োজন করে থাকে টেলিভিশন চ্যানেলগুলো। নির্মিত হয় অনেক নাটক-টেলিফিল্ম। তবে হাতে গোনা দুই একটা নাটক-টেলিফিল্ম আলোচনায় উঠে আসে।

ঈদুল আজহা উপলক্ষে তরুণ নাট্য নির্মাতা মিজানুর রহমান আরিয়ান নির্মাণ করেন ‘বড় ছেলে’ নামে টেলিফিল্ম। এতে জুটি বেঁধে অভিনয় করেন জিয়াউল ফারুক অপূর্ব ও মেহজাবিন চৌধুরী। নাটকটি প্রচারের পর সব মহলেই বেশ প্রশংসিত হয়েছে।

শত ব্যস্ততার মধ্যে এ নাটকটি দেখেছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তাফা। নাটকটি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তার ভালোলাগার কথা জানিয়েছেন তিনি।

এতে তিনি লিখেন, ‘‘গতকাল শুনলাম ‘বড় ছেলে’ নাটকটি ইউটিউবে প্রায় কুড়ি লাখবার দেখা হয়েছে। আজ দেখলাম নাটকটি। দেখার পর আশান্বিতবোধ করছি। সুনির্মিত, সুঅভিনীত, গোছানো একটি প্রযোজনা। সাধারণ মানুষের খুবই পরিচিত জীবন যাপনের গল্প। খুবই আটপৌরে, খুবই বাস্তব। নাটকের প্রতিটি মুহূর্ত, প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত এক ধরনের মায়া তৈরি করে। গল্প এগিয়ে যায় সুন্দর। বহুদিন পর একটা নাটক শেষ হবার পর মনে হলো ‘আর একটু হতো’। পরিচালককে অভিনন্দন। অভিনন্দন নাটকের প্রতিটি শিল্পী ও কলাকুশলীদের। অবশ্যই অপূর্ব এবং মেহজাবিনকে আলাদাভাবেই ধন্যবাদ দিতে চাই। কাতুকুতু দেওয়া হাসির নাটক, নানা ধরনের গিমিক, এই সব কিছুর মাঝখানে ‘বড় ছেল’ স্বস্তি দিলো। দর্শক আবার প্রমাণ করল ভালোকে ভালো বলতে তারা সব সময় প্রস্তুত।’’

x

Check Also

নয়নতারার ব্যবহারে অবাক রাম চরণ

বিনোদন ডেস্ক : ভারতের দক্ষিণী সিনেমার দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী নয়নতারা। তার পরবর্তী সিনেমা ‘সাই রা নরসিমহা রেড্ডি’। সুপারস্টার রাম চরণ প্রযোজিত সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন সুরেন্দর রেড্ডি। আগামী ২ অক্টোবর মুক্তি পাবে এটি। সিনেমাটির প্রচারের জন্য হাতে ...

বিচ্ছেদের বিরহ ভুলতে যা করছেন ইলিয়েনা

বিনোদন ডেস্ক : ভারতের দক্ষিণী সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী ইলিয়েনা ডিক্রুজ। অস্ট্রেলিয়ান ফটোগ্রাফার অ্যান্ড্রু নীবোনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে ছিলেন। সম্প্রতি তাদের ব্রেকআপ হয়েছে। তবে ব্রেকআপের কষ্ট ভুলতে চেষ্টা করছেন ইলিয়েনা। এ জন্য আবারো সিনেমার কাজে মনোযোগী ...

‘দুনিয়ার সবচেয়ে বড় কার্টুন আমার বাবা!’

বিনোদন ডেস্ক: ‘প্রতি বছরই সপরিবারে বেড়াতে যাই। সারা ট্রিপে বাবা ভীষণ মজা করেন। আমি আর বাবা বিভিন্ন রাস্তায় হেঁটে বেড়াই, স্ট্রিট ফুড খাই। দুনিয়ার সবচেয়ে বড় কার্টুন আমার বাবা! দিন গুণছি, আবার কবে বেড়াতে যাব।’— ...

শিরোনামঃ