পরীক্ষামূলক প্রকাশনা - সাইট নির্মাণাধীন

Home > আন্তর্জাতিক > সেন্টমার্টিনের দাবি থেকে সরে গেল মিয়ানমার

সেন্টমার্টিনের দাবি থেকে সরে গেল মিয়ানমার

সচিবালয় প্রতিবেদক : বাংলাদেশের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি সেন্টমার্টিনের অংশবিশেষকে নিজেদের ভূখণ্ড দাবি করে মিয়ানমার তাদের মানচিত্রে মূল ভূখণ্ডের রঙে রঙিন করেছিল সেন্টমার্টিনের মানচিত্রকে। দেশটির এই অপচেষ্টার বিরুদ্ধে কড়া প্রতিবাদ করে বাংলাদেশ। প্রতিবাদের মুখে ওই ভুয়া তথ্য সরিয়ে নিয়েছে মিয়ানমার।

রোববার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ২০তম বৈঠকে এ তথ্য জানিয়েছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব মো. শহীদুল হক।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ডেকে এ বিষয়ে জোর প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। এরপর তারা তাদের ওয়েবসাইট থেকে এটি সরিয়ে ফেলেছে।

কমিটির সভাপতি ডা. দীপু মনি বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন। এছাড়া, বৈঠকে কমিটির সদস্য ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম, মুহাম্মদ ফারুক খান, সেলিম উদ্দিন এবং বেগম মাহজাবিন খালেদ অংশ নেন। বৈঠকে আরো উপস্থিত ছিলেন- পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব মো. শহীদুল হক, মেরিটাইম অ্যাফেয়ার্স ইউনিটের সচিব মো. খুরশেদ আলমসহ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

উল্লেখ্য, মিয়ানমার সরকারের জনসংখ্যাবিষয়ক বিভাগের ওয়েবসাইট সম্প্রতি তাদের দেশের যে মানচিত্র প্রকাশ করেছে, তাতে সেন্টমার্টিনকে তাদের ভূখণ্ডের অংশ দেখানো হয়। ওই মানচিত্রে মিয়ানমারের মূল ভূখণ্ড এবং বঙ্গোপসাগরে বাংলাদেশের অন্তর্গত সেন্টমার্টিনের মানচিত্রকে একই রঙে চিহ্নিত করা হয়। অন্যদিকে বাংলাদেশের ভূ-ভাগ চিহ্নিত করা হয় অন্য রঙে।

এর আগে শনিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব (সমুদ্র বিষয়ক) অবসরপ্রাপ্ত নৌ কর্মকর্তা মো. খুরশেদ আলমের দপ্তরে মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত উ লুইন ও’কে তলব করা হয়। এ বিষয়ে প্রতিবাদ জানিয়ে মিয়ানমারকে একটি কূটনৈতিক চিঠি দেয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

কূটনৈতিক সূত্রে জানা গেছে, মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত উ লুইন ও’কে ডেকে এনে বলা হয়, মিয়ানমার সরকার গায়ে পড়ে ঝগড়া করতে চাচ্ছে। মিয়ানমার ইচ্ছাকৃতভাবে বাংলাদেশের সেন্টমার্টিনের কিছু অংশকে বৈশ্বিক অঙ্গনে নিজেদের বলে প্রচার করছে, যা খুবই আপত্তিজনক। মিয়ানমার যদি এমন আপত্তিজনক কাজ চালিয়ে যেতে থাকে তবে বাংলাদেশ উপযুক্ত ব্যবস্থা নেবে।

এ সময় রাষ্ট্রদূত উ লুইন ও’র হাতে একটি কূটনৈতিক চিঠি ধরিয়ে দেওয়া হয়। যাতে সেন্টমার্টিন যে বাংলাদেশের অংশ তার পূঙ্খানুপুঙ্খ প্রমাণ রয়েছে। পাশাপাশি ওই চিঠিতে মিয়ানমারের এমন আপত্তিকর কাজের জবাবও চাওয়া হয়। এক দিন পরেই নিজেদের অপতৎপরতা থেকে সরে আসল মিয়ানমার।

এদিকে, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির এই সভায় বহির্বিশ্বে দেশের বিরুদ্ধে যেকোনো অপপ্রচার মোকাবিলায় সার্বক্ষণিক তৎপর থাকতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে ব্যবস্থা গ্রহণের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

সভায় কমিটির ১৯তম বৈঠকের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের অগ্রগতি প্রতিবেদন উপস্থাপন করে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। কমিটির দ্বিতীয় রিপোর্ট সংসদে উপস্থাপনের জন্য চূড়ান্ত করা হয়। জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে বাংলাদেশের অংশগ্রহণ সম্পর্কে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে নেওয়া পদক্ষেপের বিবরণ উপস্থাপন করে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

এছাড়া, সভায় বাংলাদেশের বিস্ময়কর অগ্রগতিতে বিশ্বদরবারে বাংলাদেশের অবস্থান ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর ভাবমূর্তি সম্পর্কে বিশ্ব নেতৃবৃন্দের বিভিন্ন ইতিবাচক মন্তব্য তুলে ধরা হয় এবং বাংলাদেশের বর্তমান অগ্রগতি অব্যাহত রাখতে সবার সহযোগিতা কামনা করা হয়।

x

Check Also

কানাডায় জয় পেলেন ট্রুডো

কানাডার জাতীয় নির্বাচনে দ্বিতীয়বারের মতো জয় পেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। তবে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পাওয়ায় জোট সরকার গঠন করতে হবে ট্রুডোর দল লিবারেল পার্টিকে। সোমবার কানাডায় জাতীয় নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শেষ হওয়ার পর নির্বাচনী ওয়েবসাইট ...

ভারতের হুমকিকে পাত্তা দিলো না মালয়েশিয়া

কাশ্মীর ইস্যুতে নয়া দিল্লির পদক্ষেপের সমালোচনা করায় মালয়েশিয়া থেকে পাম অয়েল আমদানি বন্ধের সিন্ধান্ত নিয়েছে ভারতের ব্যবসায়ীরা। তবে ভারতের এই হুমকিকে উড়িয়ে দিয়েছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। মঙ্গলবার তিনি বলেছেন, ‘আমরা মন থেকে কথা বলেছি ...

অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন অভিজিৎসহ তিনজন

অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়। অমর্ত্য সেনের পরে চতুর্থ বাঙালি হিসেবে এই সম্মানে ভূষিত হলেন তিনি। একই সঙ্গে নোবেল সম্মান পেয়েছেন তার স্ত্রী এস্থার ডাফলোও। পুরস্কৃত হলেন অর্থনীতিবিদ মাইকেল ক্রেমারও। নোবেল কমিটি জানায়, দারিদ্র্য ...

শিরোনামঃ