পরীক্ষামূলক প্রকাশনা - সাইট নির্মাণাধীন

Home > আন্তর্জাতিক > যুক্তরাজ্য > ‘শতভাগ শপথ করে বলতে পারব’

‘শতভাগ শপথ করে বলতে পারব’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেছেন, প্রাক্তন এফবিআই প্রধান জেমস কোমি তার সম্পর্কে যেসব কথা বলেছেন, তার অনেক কিছুই সত্য নয়।

সে দেশের প্রাক্তন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা মাইকেল ফ্লিনকে নিয়ে তদন্ত বন্ধের চেষ্টার যে অভিযোগ প্রাক্তন এফবিআই প্রধান করেছেন, তা অস্বীকার করেছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেছেন, ওই অভিযোগ যে ‘সঠিক নয়’, তা তিনি শপথ করে বলতে পারবেন। এ ব্যাপারে তার শতভাগ ইচ্ছা রয়েছে।

বিবিসি জানিয়েছে, শুক্রবার হোয়াইট হাউসের এক সংবাদ সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, ‘আমি যা যা বলে আসছি, তার অনেক কিছুর সত্যতা জেমস কোমির বক্তব্যে প্রমাণ হয়েছে। আর কিছু কথা সে বলেছে যা আদৌ সত্য নয়।’

ট্রাম্প এর আগে আভাস দেন, তার কাছে কোমির কথোপকথনের টেপ রয়েছে। কংগ্রেসের একটি প্যানেল ট্রাম্প ও কোমির আলোচনার ওই টেপ চেয়েছেন।

প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপের অভিযোগ নিয়ে সিনেট কমিটির শুনানিতে হাজির হয়ে বৃহস্পতিবার প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে মিথ্যাচারের অভিযোগ আনেন জেমস কোমি, যাকে সম্প্রতি এফবিআই পরিচালকের পদ থেকে বরখাস্ত করেছেন ট্রাম্প।

দায়িত্ব নেওয়ার পরের মাসে রুশ হস্তক্ষেপ নিয়ে সমালোচনার মধ্যে ট্রাম্প জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টার পদ থেকে মাইকেল ফ্লিনকেও সরিয়ে দিয়েছিলেন।

কোমি দাবি করেছেন, তিনি ফ্লিনকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তাকে ওই তদন্ত বন্ধ করতে চাপ দেন। সিনেট কমিটির শুনানিতে শপথ নিয়ে প্রাক্তন এই এফবিআই প্রধান বলেছেন, ট্রাম্প চাইছিলেন যেন তিনি তার অনুগত থাকেন।

গত বৃহস্পতিবার মার্কিন সিনেটের শুনানিতে কোমি অভিযোগ করেন, তার সম্পর্কে ট্রাম্প নির্জলা মিথ্যা বলেছেন। ট্রাম্পের ক্যাম্পেইনের সঙ্গে রাশিয়ার গোপন আঁতাতের অভিযোগ তদন্তে মার্কিন কংগ্রেসের একাধিক কমিটি গত কয়েক মাস ধরে কাজ করছে।

এফবিআইয়ের প্রাক্তন প্রধান জেমস কোমির সঙ্গে আলোচনার বিষয় প্রকাশে পুরোপুরি সদিচ্ছা রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের। ট্রাম্প বলেছেন, এটি প্রকাশে তার শতভাগ ইচ্ছা আছে।

নির্বাচনে ‘রাশিয়ার প্রভাব অবশ্যই ছিল’- কোমির এমন বক্তব্য তার প্রতিহিংসার প্রকাশ বলেও মন্তব্য করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

কোমির বক্তব্যের সূত্র ধরে একজন সাংবাদিক ট্রাম্পের কাছে জানতে চান, তিনি ফ্লিনের বিরুদ্ধে তদন্ত বন্ধ করতে বলেছিলেন কি না। উত্তরে ট্রাম্প বলেন, ‘আমি তা বলিনি।’

এদিকে ওই সংবাদ সম্মেলনের কিছুক্ষণ পর সিনেটের ইন্টেলিজেন্স কমিটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, কোমি আর ট্রাম্পের কথোপকথনের কোনো টেপ থাকলে তা ২৩ জুনের মধ্যে জমা দিতে হোয়াইট হাউজকে অনুরোধ করা হয়েছে। সিনেটের জুডিশিয়ারি কমিটিও গত মাসে হোয়াইট হাউজের কাছে ওই টেপ চেয়েছিল।

x

Check Also

বোমার নামে ‘মা’ ব্যবহারে লজ্জিত পোপ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ক্যাথলিক খ্রিস্টানদের ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস মার্কিন সর্ববৃহৎ অ-পারমাণবিক বোমার নামে ‘মা’ শব্দ ব্যবহার করার নিন্দা জানিয়েছেন। একই সঙ্গে তিনি বোমাটির নামের সঙ্গে ‘মা’ ব্যবহার বন্ধেরও আহ্বান জানিয়েছেন। ভ্যাটিকোনে ছাত্রদের সঙ্গে কথা বলার ...

নাফটা বাতিল করছেন না ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : নর্থ আমেরিকান ফ্রি ট্রেড এগ্রিমেন্ট বা নাফটা থেকে সরে আসছে না যুক্তরাষ্ট্র। বুধবার রাতে হোয়াইট হাউজের পক্ষ থেকে এ ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। এ ঘোষণার মাত্র কয়েক ঘন্টা আগেও ট্রাম্পের উপদেষ্টারা জানিয়েছেলেন, নাফটা ...

লন্ডনে হামলাকারীর নাম খালিদ মাসুদ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : লন্ডনের ওয়েস্টমিনস্টার সেতু ও পার্লামেন্ট প্রাঙ্গণে হামলাকারীর নাম খালিদ মাসুদ। বৃহস্পতিবার লন্ডন পুলিশের বরাত দিয়ে রয়টার্স এ তথ্য জানিয়েছে। এর আগে ব্রিটিশ প্রধামন্ত্রী থেরেসা মে পার্লামেন্টে জানিয়েছেন, হামলাকারী ব্রিটিশ বংশোদ্ভূত। কয়েক বছর ...

শিরোনামঃ