পরীক্ষামূলক প্রকাশনা - সাইট নির্মাণাধীন

Home > খেলা > নাঈমের বিশ্ব রেকর্ডের পর বিপদে বাংলাদেশ

নাঈমের বিশ্ব রেকর্ডের পর বিপদে বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক : 

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টের দ্বিতীয় দিন শেষে ১৩৩ রানে এগিয়ে আছে বাংলাদেশ।

নাঈমের বিশ্ব রেকর্ডের পর বিপদে বাংলাদেশ

দিনটা হতে পারত নাঈম হাসানের। সবচেয়ে কম বয়সে টেস্ট অভিষেকে পাঁচ উইকেট নেওয়ার বিশ্ব রেকর্ড গড়েছেন এই অফ স্পিনার। তাতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে প্রথম ইনিংসে ২৪৬ রানে থামিয়ে ৭৮ রানের মূল্যবান লিড পেয়েছে বাংলাদেশ। কিন্তু ব্যাটিংয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে বিপদে আছে বাংলাদেশ।

দ্বিতীয় দিন শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ৫৫ রান। আউট হয়েছেন ইমরুল কায়েস, সৌম্য সরকার, মুমিনুল হক, সাকিব আল হাসান ও মোহাম্মদ মিথুন। মুশফিকুর রহিম ১১ ও মেহেদী হাসান মিরাজ শূন্য রানে অপরাজিত আছেন। ৬ উইকেট হাতে নিয়ে বাংলাদেশ এগিয়ে আছে ১৩৩ রানে।

দ্বিতীয় দিন শেষে সংক্ষিপ্ত স্কোর

বাংলাদেশ ১ম ইনিংস: ৩২৪

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১ম ইনিংস: ২৪৬

বাংলাদেশ ২য় ইনিংস: ১৭ ওভারে ৫৫/৫ (ইমরুল ২, সৌম্য ১১, মুমিনুল ১২, মিথুন ১৭, সাকিব ১, মুশফিক ১১*, মিরাজ ০*; চেজ ২/১৬, ওয়ারিকান ২/২২, বিশু ১/৫)।

শেষ বেলায় ফিরলেন মিথুন

দিনের শেষ দিকে আউট হয়েছেন মোহাম্মদ মিথুন। ১৭ রান করে লেগ স্পিনার দেবেন্দ্র বিশুর বলে বোল্ড হয়েছেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান। তখন বাংলাদেশের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ৫৩ রান। মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ।

টিকলেন না সাকিব

ব্যাটসম্যানদের আসা-যাওয়ার মিছিলে যোগ দিলেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসানও। ১ রান করে জোমেল ওয়ারিকানকে স্লগ সুইপ করতে গিয়ে ডিপ মিড উইকেটে ক্যাচ দিয়েছেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

তখন ৩৫ রানেই ৪ উইকেট হারিয়ে বিপদে বাংলাদেশ। মোহাম্মদ মিথুনের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন মুশফিকুর রহিম।

এবার পারলেন না মুমিনুল

প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান মুমিনুল হক দ্বিতীয় ইনিংসে ১২ রানের বেশি করতে পারলেন না। অফ স্পিনার রোস্টন চেজের বল ডিফেন্ড করতে গিয়ে মিস করেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। বল আঘাত হানে প্যাডে। এলবিডব্লিউয়ের আবেদনে সাড়া দেন আম্পায়ার। রিভিউ না নিয়ে ফিরে যান মুমিনুল।

তখন ৩২ রানে ৩ উইকেট নেই বাংলাদেশের। মোহাম্মদ মিথুনের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন সাকিব আল হাসান।

রিভিউ নিয়ে বাঁচলেন মিথুন

মুখোমুখি প্রথম বলেই ফিরে যেতে পারতেন মোহাম্মদ মিথুন। রোস্টন চেজের বলে তাকে এলবিডব্লিউ দিয়েছিলেন আম্পায়ার। রিভিউ নেন মিথুন। হক আইতে দেখা যায়, বল স্টাম্প মিস করে যেত। বেঁচে যান মিথুন।

আবার ব্যর্থ সৌম্য

প্রথম ইনিংসে শূন্য রানে আউট হওয়া সৌম্য সরকার দ্বিতীয় ইনিংসেও রান পাননি। ১১ রান করে রোস্টন চেজের বলে স্লিপে ক্যাচ দিয়েছেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

স্কোর ১৩ রেখে পরপর দুই ওভারে বাংলাদেশ হারায় প্রথম ২ উইকেট। মুমিনুল হকের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন মোহাম্মদ মিথুন।

শুরুতেই ফিরলেন ইমরুল

দ্বিতীয় ওভারেই উইকেট হারিয়েছে বাংলাদেশ। ২ রান করে বাঁহাতি স্পিনার জোমেল ওয়ারিকানের বলে বোল্ড হয়েছেন ইমরুল কায়েস। ভেঙেছে ১৩ রানের উদ্বোধনী জুটি।

বাংলাদেশের ৭৮ রানের লিড

শ্যানন গ্যাব্রিয়েলকে ফিরিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইনিংসের ইতি টেনেছেন সাকিব আল হাসান। বাংলাদেশের ৩২৪ রানের জবাবে ২৪৬ রানে অলআউট হয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ৬৩ রানে অপরাজিত ছিলেন শেন ডোরিচ। প্রথম ইনিংসে ৭৮ রানের মূল্যবান লিড পেয়েছে বাংলাদেশ।

৬১ রানে ৫ উইকেট  নিয়ে বাংলাদেশের সেরা বোলার অভিষিক্ত নাঈম হাসান। সাকিব আল হাসান ৪৩ রানে নিয়েছেন ৩ উইকেট। একটি করে উইকেট পেয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ ও তাইজুল ইসলাম।

 

অভিষেকে পাঁচ উইকেট নাঈমের

টেস্ট অভিষেকেই পাঁচ উইকেট নিলেন নাঈম হাসান। জোমেল ওয়ারিকানকে বোল্ড করে পাঁচ উইকেট পূর্ণ করেন তরুণ এই অফ স্পিনার।

সবচেয়ে কম বসয়ে টেস্ট অভিষেকে পাঁচ উইকেট নেওয়ার রেকর্ড গড়লেন নাঈম। সব মিলিয়ে চতুর্থ কম বয়সি ক্রিকেটার হিসেবে পাঁচ উইকেট নিলেন।

বাংলাদেশের মাত্র অষ্টম বোলার হিসেবে অভিষেকে পাঁচ উইকেট নিলেন নাঈম। আগের সাতজনের মধ্যে তিনজন খেলছেন এই টেস্টেই-মাহমুদউল্লাহ, তাইজুল ইসলাম ও মেহেদী হাসান মিরাজ। অন্য চারজন হলেন নাঈমুর রহমান, মানজুরুল ইসলাম, ইলিয়াস সানী, সোহাগ গাজী।

ওয়ারিকানের বিদায়ের সময় ওয়েস্ট ইন্ডিজের সংগ্রহ ৯ উইকেটে ২২৫ রান। শেন ডোরিচের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন শ্যানন গ্যাব্রিয়েল।

চার বলে দুই উইকেট নাঈমের

চা বিরতির পর তৃতীয় ওভারে আক্রমণে এসে চার বলের মধ্যে দুই উইকেট নিয়েছেন নাঈম হাসান। অভিষিক্ত অফ স্পিনারের তৃতীয় বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরেন দেবেন্দ্র বিশু (৭)। শেষ বলে এলবিডব্লিউ কেমার রোচও (২)। রিভিউ নিয়েও রক্ষা হয়নি। ইনিংসে এটি নাঈমের চতুর্থ উইকেট।

দ্রুত দুই উইকেট হারিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সংগ্রহ তখন ৮ উইকেটে ২০৫ রান। ৪২ রানে ব্যাট করা শেন ডোরিচের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন জোমেল ওয়ারিকান।

 

দ্বিতীয় সেশনে ৩ উইকেট

দ্বিতীয় সেশনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৩ উইকেট তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। তবে এই সময়ে ৩১ ওভারে ওয়েস্ট ইন্ডিজ তুলেছে ১৩৩ রান।

লাঞ্চ থেকে ফিরে রোস্টন চেজ ও সুনীল অ্যামব্রিসের উইকেট হারায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এরপর পাল্টা আক্রমণে শেন ডোরিচকে সঙ্গে নিয়ে ষষ্ঠ উইকেটে ৯২ রানের জুটি গড়েন শিমরন হেটমায়ার। চা বিরতির আগে তাকে ফিরিয়ে বাংলাদেশকে স্বস্তি এনে দেন মেহেদী হাসান মিরাজ।

চা বিরতির সময় ৫০ ওভারে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ১৮৭ রান। ডোরিচ ৩৫ ও দেবেন্দ্র বিশু ২ রানে অপরাজিত আছেন।

বিপজ্জনক হেটমায়ারকে ফেরালেন মিরাজ

ঝোড়ো ফিফটি করে বিপজ্জনক হয়ে ওঠা শিমরন হেটমায়ারকে ফিরিয়ে ৯২ রানের ষষ্ঠ উইকেট জুটি ভেঙেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ।

অফ স্পিনারের দারুণ এক বলে এজ হয়ে উইকেটকিপার মুশফিকুর রহিমের হাতে ধরা পড়েন হেটমায়ার। ৪৭ বলে ৫ চার ও ৪ ছক্কায় ৬৩ রান করেন বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান।

হেটমায়ার ফেরার সময় ৪৬ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সংগ্রহ ১৮০ রান। শেন ডোরিচের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন দেবেন্দ্র বিশু।

হেটমায়ারের ঝোড়ো ফিফটি

শুরু থেকেই বাংলাদেশের বোলারদের ওপর চড়াও হওয়া শিমরন হেটমায়ার ঝোড়ো ফিফটি তুলে নিয়েছেন। সাকিব আল হাসানের বলে দুই রান নিয়ে ৪২ বলে ছুঁয়েছেন পঞ্চাশ।পরের দুই বলে সাকিবকে হাঁকিয়েছেন চার ও ছক্কা।

 

নাঈমের আরেকটি উইকেট

নিজের আগের ওভারে পেয়েছিলেন প্রথম টেস্ট উইকেট। নাঈম হাসান পরের ওভারে এসেই উইকেট নিলেন আরেকটি।

অফ স্পিনারের অফ স্টাম্পের বল ডিফেন্ড করতে গিয়ে এলবিডব্লিউ হন সুনীল অ্যামব্রিস। রিভিউ নিয়েও উইকেট বাঁচাতে পারেননি ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

অ্যামব্রিস ৬৯ বলে ১৯ রান করে ফেরার সময় ৮৮ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে বিপদে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। উইকেটে আছেন দুই নতুন ব্যাটসম্যান শিমরন হেটমায়ার ও শেন ডোরিচ।

নাঈমের প্রথম উইকেট

টেস্ট ক্রিকেটে নিজের তৃতীয় ওভারে প্রথম উইকেটের স্বাদ পেলেন নাঈম হাসান। রোস্টন চেজকে আউট করে ৪৬ রানের চতুর্থ উইকেট জুটি ভেঙেছেন তিনি।

অফ স্পিনারের বল বা বাড়িয়ে ডিফেন্ড করতে চেয়েছিলেন চেজ। ইনসাইড এজ হয়ে ক্যাচ যায় শর্ট লেগে। সেখানে বল হাতে জমান ইমরুল কায়েস।

চেজ ৪৩ বলে ৩১ রান করে ফেরার সময় ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্কোর ৪ উইকেটে ৭৭ রান। সুনীল অ্যামব্রিসের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন শিমরন হেটমায়ার।

রিভিউ নিয়ে বাঁচলেন অ্যামব্রিস

সাকিব আল হাসানের বল সুইপ করতে গিয়েছিলেন সুনীল অ্যামব্রিস। বল আঘাত করে তার প্যাডে। এলবিডব্লিউয়ের আবেদনে সাড়া দেন আম্পায়ার। ব্যাটসম্যান চান রিভিউ। আল্ট্রাএজে দেখা যায়, বল অ্যামব্রিসের ব্যাট স্পর্শ করেছিল। পাল্টায় সিদ্ধান্ত। ১৪ রানে বেঁচে যান অ্যামব্রিস।

 

প্রথম সেশনে দুর্দান্ত সাকিব

দ্বিতীয় দিনের প্রথম আধা ঘণ্টায় বাংলাদেশের শেষ ২ উইকেট তুলে নিয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। লাঞ্চের আগে বাকি সময়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৩ উইকেট তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। এমনকি উইকেট-সংখ্যা হতে পারত ৫টি! দুটি ক্যাচ ছাড়ায় তা আর হয়নি।

কাইরন পাওয়েলকে ফিরিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন তাইজুল ইসলাম। পরের ওভারে প্রথমবারের মতো আক্রমণে এসেই শাই হোপ ও ক্রেইগ ব্রাফেটের উইকেট তুলে নেন চোট কাটিয়ে ফেরা সাকিব আল হাসান।

এই ওভারে সাকিব উইকেট পেতে পারতেন আরো একটি। কিন্তু সুনীল অ্যামব্রিসের ক্যাচ ফেলেন উইকেটকিপার মুশফিকুর রহিম।

লাঞ্চের আগে শেষ ওভারে আবারো সাকিবের বলে ক্যাচ মিস হয়। এবার রোস্টন চেজের ক্যাচ ছাড়েন মুস্তাফিজুর রহমান।

ক্যাচ দুটি না ছাড়লে লাঞ্চের আগেই সাকিবের ২০০ টেস্ট উইকেট হয়ে যেতে পারত। এখন যেটি হয়ে আছে ১৯৮টি।

লাঞ্চ বিরতিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ৫৪ রান। চেজ ১৯ ও অ্যামব্রিস ৫ রানে অপরাজিত আছেন। ৩১ রানে ৩ উইকেট হারানোর পর জুটি বাঁধেন এই দুজন।

ক্যাচ ছাড়লেন মুস্তাফিজ

সাকিব আল হাসানের বলে রোস্টন চেজের ক্যাচ ছাড়লেন মুস্তাফিজুর রহমান। বাঁহাতি স্পিনারকে সুইপ করতে গিয়ে ঠিকমতো খেলতে পারেননি চেজ। ডিপ স্কয়ার লেগ থেকে কিছুটা এগিয়ে এসে বলে হাত ছোঁয়ালেও তালুবন্দি করতে পারেননি মুস্তাফিজ। তখন ১৮ রানে ব্যাট করছিলেন চেজ।

প্রথম ওভারে সাকিবের দুই উইকেট

ইনিংসে নিজের প্রথম বলেই তুলে নেন উইকেট। সাকিব আল হাসান ওভারে শেষ বলে উইকেট নিলেন আরো একটি।

বাঁহাতি স্পিনারের বলে প্রথম স্লিপে সৌম্য সরকারের হাতে ক্যাচ দেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক ক্রেইগ ব্রাফেট। ৪৭ বলে ১৩ রান করে ফেরেন তিনি।

বিনা উইকেটে ২৯ থেকে দুই ওভারের মধ্যেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্কোর তখন ৩ উইকেটে ৩১! এমনকি স্কোরটা ৪ উইকেটে ৩১ হতে পারত! সাকিবের তৃতীয় বলে সুনীল অ্যামব্রিসের ক্যাচ ফেলেন উইকেটকিপার মুশফিকুর রহিম। উইকেটে অ্যামব্রিসের সঙ্গী রোস্টন চেজ।

 

প্রথম বলেই সাকিবের উইকেট

আগের ওভারে কাইরন পাওয়েলকে ফিরিয়ে উদ্বোধনী জুটি ভেঙেছিলেন তাইজুল ইসলাম। পরের ওভারে নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে উইকেটে আসা শাই হোপকে ফিরিয়েছেন সাকিব আল হাসান।

ইনিংসে নিজের প্রথম বলেই উইকেট পেলেন সাকিব। বাঁহাতি স্পিনারকে বেরিয়ে এসে খেলতে চেয়েছিলেন হোপ। লেগ স্টাম্পের বাইরে পড়ে বল টার্ন করে গিয়ে আঘাত হানে লেগ স্টাম্পে।

হোপ ৪ বলে ১ রান করে ফেরার সময় ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্কোর ২ উইকেটে ৩০ রান। ক্রেইগ ব্রাফেটের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন সুনীল অ্যামব্রিস।

উদ্বোধনী জুটি ভাঙলেন তাইজুল

প্রথম ঘণ্টার পানি পানের বিরতির পর দ্বিতীয় ওভারেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের উদ্বোধনী জুটি ভেঙেছেন তাইজুল ইসলাম। বাঁহাতি স্পিনারের বলে এলবিডব্লিউ হয়েছেন কাইরন পাওয়েল। এর আগে একবার রিভিউ নিয়ে বেঁচে গিয়েছিলেন তিনি। এবার রিভিউ নিয়েও আর রক্ষা হয়নি।

পাওয়েল ২০ বলে ১৪ রান করে ফেরার সময় ওয়েস্ট ইন্ডিজের সংগ্রহ ১ উইকেটে ২৯ রান। ক্রেইগ ব্রাফেটের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন শাই শোপ।

রিভিউ নিয়ে বাঁচলেন পাওয়েল

ইনিংসের চতুর্থ ওভারেই আউট হয়ে যেতে পারতেন কাইরন পাওয়েল। অফ স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজের বল ডিফেন্ড করতে চেয়েছিলেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। বল আঘাত হানে তার প্যাডে।

বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের এলবিডব্লিউয়ের আবেদনে আঙুল তুলে দেন আম্পায়ার। পাওয়েল নেন রিভিউ। আল্ট্রাএজে দেখা যায়, বল পাওয়েলের ব্যাট স্পর্শ করেছিল। পাল্টায় সিদ্ধান্ত। তখন ২ রানে ব্যাট করছিলেন পাওয়েল।

 

৩২৪ রানে থামল বাংলাদেশ

দ্বিতীয় দিনে বেশিদূর যেতে পারল না বাংলাদেশ। এদিন স্কোরবোর্ডে আর ৯ রান যোগ করতেই শেষ ২ উইকেট হারিয়েছে স্বাগতিকরা। বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস থেমেছে ৩২৪ রানে।

দিনের পঞ্চম ওভারে প্রথমবারের মতো আক্রমণে এসে চার বলের মধ্যে নাঈম হাসান ও মুস্তাফিজুর রহমানের উইকেট তুলে নেন জোমেল ওয়ারিকান। বাঁহাতি স্পিনারের প্রথম বলে স্লিপে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন অভিষিক্ত নাঈম। ৭৪ বলে ২ চারে ২৬ রান করেন তিনি।

পরের বলে মুস্তাফিজকে এলবিডব্লিউ দিয়েছিলেন আম্পায়ার। রিভিউ নিয়ে বেঁচে যান মুস্তাফিজ। এক বল পর আবার এলবিডব্লিউয়ের আবেদনে আঙুল তুলে দেন আম্পায়ার। এবার আর রিভিউ নিয়েও রক্ষা হয়নি মুস্তাফিজের। ৬৮ বলে ৪ চার ও এক ছক্কায় ক্যারিয়ার সেরা ৩৯ রানে অপরাজিত ছিলেন তাইজুল।

৪টি করে উইকেট নিয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওয়ারিকান ও শ্যানন গ্যাব্রিয়েল। কেমার রোচ ও দেবেন্দ্র বিশু পেয়েছেন একটি করে উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

বাংলাদেশ ১ম ইনিংস: ৯২.৪ ওভারে ৩২৪ (ইমরুল ৪৪, সৌম্য ০, মুমিনুল ১২০, মিথুন ২০, সাকিব ৩৪, মুশফিক ৪, মাহমুদউল্লাহ ৩, মিরাজ ২২, নাঈম ২৬, তাইজুল ৩৯*, মুস্তাফিজ ০; ওয়ারিকান ৪/৬২, গ্যাব্রিয়েল ৪/৭০, বিশু ১/৬০, রোচ ১/৬৩)।

কতদূর যাবে বাংলাদেশ?

নবম উইকেটে অভিষিক্ত নাঈম হাসান ও তাইজুল ইসলামের পঞ্চাশোর্ধ জুটিতে তিনশ ছাড়িয়েছে বাংলাদেশের স্কোর। প্রথম দিন শেষে বাংলাদেশের স্কোর ৮ উইকেটে ৩১৫ রান। এ জুটিতে তারা দুজন খেলেছেন ৯৫ বল। আরো বড় বিষয়, যোগ করেছেন মূল্যবান ৫৬ রান।

তাইজুল ৫৭ বলে ৩২ ও নাঈম ৬০ বলে ২৪ রান নিয়ে শুক্রবার দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করেছেন। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে দিনের খেলা শুরু হয়েছে সকাল সাড়ে নয়টায়।

প্রথম দিন শেষে সংক্ষিপ্ত স্কোর

বাংলাদেশ ১ম ইনিংস: ৮৮ ওভারে ৩১৫/৮ (ইমরুল ৪৪, সৌম্য ০, মুমিনুল ১২০, মিথুন ২০, সাকিব ৩৪, মুশফিক ৪, মাহমুদউল্লাহ ৩, মিরাজ ২২, নাঈম ২৪*, তাইজুল ৩২*; গ্যাব্রিয়েল ৪/৬৯, ওয়ারিকান ২/৬২, বিশু ১/৬০)।

 

x

Check Also

চোখ থাকবে ‘অধিনায়ক’ তামিমের দিকে

বাংলাদেশের সবচেয়ে সফল ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা জাতীয় দলের নেতৃত্বের পদ থেকে সরে দাঁড়ালে সেই জায়গায় স্থলাভিষিক্ত হোন তামিম ইকবাল। জাতীয় দলের ওয়ানডে অধিনায়কত্ব পেলেও মাঠে নিজের নেতৃত্ব দেখানোর সুযোগই পাচ্ছিলেন না এই ওপেনার। ...

যে লিংকে দেখা যাবে মাহমুদউল্লাহ-শান্ত একাদশের ম্যাচ

দুপুর দেড়টায় মাঠে গড়াবে তিন দলের ওয়ানডে প্রতিযোগিতা ‘বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ’। মিরপুর শের-ই-বাংলায় মুখোমুখি হবে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ একাদশ ও নাজমুল হোসেন শান্তর একাদশ। সীমিত পরিসরের এ প্রতিযোগিতায় খেলছেন জাতীয় দল ও এইচপির ক্রিকেটাররা। তামিম, মাহমুদউল্লাহ ...

সতীর্থদের জন্য ওয়ানডে অধিনায়কের যে বার্তা

দীর্ঘদিন পর মিরপুরে গড়াচ্ছে সাদা বলের ক্রিকেট। ব্যাট-বলের প্রতিযোগিতায় মেতে উঠবেন তামিম, মাহমুদউল্লাহ ও নাজমুলের একাদশ। জাতীয় দল ও এইচপির ক্রিকেটারদের নিয়ে রোববার (১১ অক্টোবর) থেকে শুরু হচ্ছে তিন দলের ‘বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ’। প্রতিযোগিতায় নিজ ...

শিরোনামঃ