পরীক্ষামূলক প্রকাশনা - সাইট নির্মাণাধীন

Home > খেলা > হারের পথে বাংলাদেশ

হারের পথে বাংলাদেশ

বিশ্বকাপের আগে শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে ভারতের দেওয়া ৩৬০ রানের বড় লক্ষ্যে ব্যাট করছে বাংলাদেশ।

স্কোর: ২৩০/৮ (৪৫ ওভার)।

ফিরলেন সাব্বিরও

আগের ওভারে পরপর দুই বলে পড়েছিল দুই উইকেট। পরের ওভারে ফিরলেন সাব্বির রহমানও। রবীন্দ্র জাদেজার বলে বোল্ড হওয়ার আগে সাব্বির ১২ বলে একটি চারে করেন ৭ রান।

তার বিদায়ের সময় ৪০ ওভার ২ বলে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৮ উইকেটে ২১৬ রান। উইকেটে দুই নতুন ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ও মেহেদী হাসান মিরাজ।

আবার জোড়া উইকেট

ইনিংসে তৃতীয়বারের মতো পরপর দুই বলে দুই উইকেট হারাল বাংলাদেশ! এবার কুলদীপ যাদবের জোড়া শিকার মুশফিকুর রহিম ও মোসাদ্দেক হোসেন। মুখোমুখি প্রথম বলে বেরিয়ে এসে খেলতে গিয়ে স্টাম্পড হয়েছেন মোসাদ্দেক।

মুশফিকের ১০ রানের আক্ষেপ

মাত্র ১০ রানের জন্য সেঞ্চুরি না পাওয়ার আক্ষেপে পুড়লেন মুশফিকুর রহিম। রিস্ট স্পিনার কুলদীপ যাদবকে সুইপ করতে গিয়ে বল মিস করে বোল্ড হন উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান। ৯৪ বলে ৮ চার ও ২ ছক্কায় ৯০ রানের ইনিংসটি সাজান মুশফিক।

টিকলেন না মাহমুদউল্লাহও

কুলদীপ যাদবের আগের বলে প্যাডল সুইপ করতে গিয়ে ব্যাটের কোণায় লেগে কোনোরকমে চার পেয়েছিলেন। পরের বলে রিস্ট স্পিনারকে ডাউন দ্য উইকেটে খেলতে এসে বল মিস করে বোল্ড হয়েছেন মাহমুদউল্লাহ।

১২ বলে একটি চারে মাহমুদউল্লাহ করেন ৯ রান। তার বিদায়ের সময় ৩৫ ওভার ৪ বলে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ১৯১ রান। ৭২ রানে ব্যাট করা মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন সাব্বির রহমান।

টিকলেন না মিথুন

পরপর দুই বলে দুই উইকেট হারানো যেন বাংলাদেশের জন্য নিয়মে পরিণত হয়েছে আজ! একটা সময় পরপর দুই বলে আউট হয়েছিলেন সৌম্য সরকার ও সাকিব আল হাসান। এবার লিটন দাস ও মোহাম্মদ মিথুন।

যুজবেন্দ চাহালের আগের বলে স্টাম্পড হয়েছিলেন লিটন। পরের বলে এলবিডব্লিউ হয়েছেন মিথুন। জোড়া উইকেট হারিয়ে তখন আবারো চাপে বাংলাদেশ।

৩২ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৪ উইকেটে ১৬৯ রান। মুশফিকুর রহিম ৫৯ রানে অপরাজিত আছেন। উইকেটে তার সঙ্গী এখন মাহমুদউল্লাহ।

মনোযোগ হারিয়ে আউট লিটন

আগের ওভারে রবীন্দ্র জাদেজাকে সুইপ করতে গিয়ে বল মিস করে গলায় ব্যথা পেয়েছিলেন। নিতে হয়েছিল ফিজিওর সেবাশুশ্রূষাও। দারুণ ব্যাটিং করতে থাকা লিটন দাস যেন মনোযোগ হারালেন সেখানেই। পরের ওভারে যুজবেন্দ্র চাহালকে ডাউন দ্য উইকেটে খেলতে এসে বল মিস করে হলেন স্টাম্পড।

৯০ বলে ১০ চারে ৭৩ রান করেন লিটন। তার বিদায়ে ভাঙে ১২০ রানের তৃতীয় উইকেট জুটি। তখন ৩১ ওভার ৩ বলে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ১৬৯ রান। মুশফিকুর রহিম ৫৯ রানে অপরাজিত আছেন। তার সঙ্গী মোহাম্মদ মিথুন।

দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে মুশফিকের ফিফটি

দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ফিফটি করেছেন মুশফিকুর রহিম। ৫৮ বলে পঞ্চাশ স্পর্শ করতে ৪টি চারের সঙ্গে একটি ছক্কা হাঁকান ডানহাতি এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান।

২৮ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ২ উইকেটে ১৫৭ রান। লিটন ৭০ ও মুশফিক ৫০ রানে অপরাজিত আছেন। জয়ের জন্য ২২ ওভার থেকে আরো ২০৩ রান করতে হবে বাংলাদেশকে।

মুশফিক-লিটন জুটির একশ

বাঁহাতি স্পিনার রবীন্দ্র জাদেজাকে ডাউন দ্য উইকেটে এসে ডিপ মিড উইকেট দিয়ে চার মারলেন লিটন দাস। এই চারে পূর্ণ হলো মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে তার তৃতীয় উইকেট জুটির শতরান, মাত্র ৮২ বলে।

লিটনের ফিফটি

৪৭ থেকে যুজবেন্দ্র চাহালকে চার মেরে ফিফটি পূর্ণ করেছেন লিটন দাস। ৬৫ বলে ফিফটি করতে ৬টি চার হাঁকান ডানহাতি এই ওপেনার। এক বল পর চাহালকে আরেকটি চার হাঁকান তিনি।

২৪ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ২ উইকেটে ১২৫ রান। লিটন ৫৫ ও মুশফিকুর রহিম ৩৫ রানে অপরাজিত আছেন।

জুটির পঞ্চাশ, বাংলাদেশের একশ

পরপর দুই বলে সৌম্য সরকার ও সাকিব আল হাসানের বিদায়ের পর চাপে পড়েছিল বাংলাদেশ। এরপর প্রতিরোধ গড়েছেন লিটন দাস ও মুশফিকুর রহিম। তাদের তৃতীয় উইকেট জুটি ছুঁয়েছে পঞ্চাশ, ৫৯ বলে। আর বাংলাদেশ পূর্ণ করেছে দলীয় শতরান।

২০ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ২ উইকেটে ১০২ রান। লিটন ৪১ ও মুশফিক ২৭ রানে অপরাজিত আছেন। জয়ের জন্য ৩০ ওভার থেকে আরো ২৫৮ রান করতে হবে বাংলাদেশকে।

প্রথম বলেই বোল্ড সাকিব

তিন নম্বরে নেমে মুখোমুখি প্রথম বলেই আউট হয়েছেন সাকিব আল হাসান। ডানহাতি পেসার জাসপ্রিত বুমরাহর ইয়র্কারে বোল্ড হন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

পরপর দুই বলে দুই উইকেট হারিয়ে তখন চাপে বাংলাদেশ। ১০ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ২ উইকেটে ৪৯ রান। লিটন দাস ২০ ও মুশফিকুর রহিম শূন্য রানে অপরাজিত আছেন।

ভালো শুরুর পর সৌম্যর বিদায়

দলকে ভালো সূচনা এনে দেওয়ার পর বিদায় নিয়েছেন সৌম্য সরকার। জাসপ্রিত বুমরাহর অফ স্টাম্পের বল বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের ব্যাটের কানা ছুঁয়ে জমা হয় উইকেটকিপার দিনেশ কার্তিকের গ্লাভসে।

২৯ বলে ৩ চার ও এক ছক্কায় ২৫ রান করেন সৌম্য। তার বিদায়ে ভাঙে ১০ ওভার ৪ বল স্থায়ী ৪৯ রানের উদ্বোধনী জুটি। লিটন দাসের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন সাকিব আল হাসান।

সৌম্য-লিটনের ব্যাটে ভালো সূচনা

লক্ষ্য তাড়ায় ওপেনিংয়ে নামেননি তামিম ইকবাল। সৌম্য সরকারের সঙ্গে ইনিংস উদ্বোধন করতে নামেন লিটন দাস। বাংলাদেশকে ভালো সূচনা এনে দিয়েছেন এই দুজন।

লিটন শুরু করেন দেখেশুনে, সৌম্য যথারীতি আক্রমণাত্মক। বাঁহাতি ব্যাটসম্যান প্রথম ওভারেই মোহাম্মদ শামিকে মারেন টানা চার ও ছক্কা। জাসপ্রিত বুমরাহকে মারেন টানা দুই চার। পরে বুমরাহকে টানা দুই চার মেরে স্ট্রাইক বাড়ান লিটনও।

৮ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ বিনা উইকেটে ৪৭ রান। সৌম্য ২৫ ও লিটন ১৮ রানে অপরাজিত আছেন। জয়ের জন্য ৪২ ওভার থেকে করতে হবে আরো ৩১৩ রান।

রাহুল-ধোনির সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশের সামনে রানের পাহাড়

১০২ রানের মধ্যে ৪ উইকেট তুলে নিয়ে ভারতকে বেশ চাপেই রেখেছিল বাংলাদেশ। পরে সেই চাপটা ধরে রাখতে পারেননি বোলাররা। লোকেশ রাহুল ও মহেন্দ্র সিং ধোনির সেঞ্চুরিতে সাড়ে তিনশ ছাড়ানো পুঁজি পেয়েছে ভারত। জিততে হলে বাংলাদেশকে করতে হবে ৩৬০ রান। অবশ্য বড় লক্ষ্য হওয়ায় বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানের সামনেও নিজেদের ঝালিয়ে নেওয়ার ভালো সুযোগ।

বাংলাদেশের হয়ে ২টি করে উইকেট নিয়েছেন রুবেল হোসেন ও সাকিব আল হাসান। সাকিব ৬ ওভারে ৫৮ ও রুবেল ৮ ওভারে দিয়েছেন ৬২ রান। মুস্তাফিজুর রহমান ৮ ওভারে ৪৩ রানে একটি, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ৬ ওভারে ২৭ রানে একটি ও সাব্বির রহমান ৫ ওভারে ৩০ রানে নিয়েছেন একটি উইকেট। মাশরাফি বিন মুর্তজা ৬ ওভারে ২৩ রান দিয়ে উইকেটশূন্য ছিলেন। আবু জায়েদ রাহী ৩ ওভারে দিয়েছেন ৪১ রান। মেহেদী হাসান মিরাজ ৫ ওভারে খরচ করেছেন ৪০ রান।

সংক্ষিপ্ত স্কোর : ভারত ৫০ ওভারে ৩৫৯/৭ (রোহিত ১৯, ধাওয়ান ১, কোহলি ৪৭, রাহুল ১০৮, শঙ্কর ২, ধোনি ১১৩, পান্ডিয়া ২১, কার্তিক ৭*, জাদেজা ১১*; রুবেল ২/৬২, সাকিব ২/৫৮, মুস্তাফিজ ১/৪৩, সাইফউদ্দিন ১/২৭, সাব্বির ১/৩০)

ধোনিকে থামালেন সাকিব

নিজের আগের ওভারে নিয়েছিলেন হার্দিক পান্ডিয়ার উইকেট। সাকিব আল হাসান ইনিংসের শেষ ওভারে এসে ফিরিয়েছেন সেঞ্চুরিয়ান মহেন্দ্র সিং ধোনিকেও। ডাউন দ্য উইকেটে খেলতে এসে বলের লাইন মিস করে বোল্ড হন ধোনি।

৭৮ বলে ৮ চার ও ৬ ছক্কায় ধোনি করেন ১১৩ রান। তার বিদায়ের সময় ৪৯ ওভার ২ বলে ভারতের সংগ্রহ ৭ উইকেটে ৩৪৮ রান। উইকেটে দিনেশ কার্তিকের সঙ্গী রবীন্দ্র জাদেজা।

ছক্কায় সেঞ্চুরি ধোনির

৯৯ রানে পৌঁছে গিয়েছিলেন এক ওভার আগেই। এরপর এক ওভারে কোনো স্ট্রাইক পাননি। পরের ওভারে আবু জায়েদ রাহীর প্রথম বলেই ছক্কা হাঁকিয়ে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। ৭৩ বলে সেঞ্চুরি পূর্ণ করতে ৮টি চারের সঙ্গে ৬টি ছক্কা হাঁকান ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান।

পান্ডিয়াকে ফিরিয়ে সাকিবের প্রতিশোধ

৪৮তম ওভারে সাকিবের প্রথম দুই বলে হার্দিক পান্ডিয়া মেরেছিলেন একটি করে চার ও ছক্কা। এরপর টানা দুটি ওয়াইড। পরের বলে পান্ডিয়াকে ফিরিয়ে প্রতিশোধ নেন সাকিব। বাঁহাতি স্পিনারকে ছক্কায় উড়াতে চেয়েছিলেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান। লং অনে ক্যাচ নেন সাব্বির রহমান।

১১ বলে ২ চার ও এক ছক্কায় পান্ডিয়া করেন ২১ রান। তার বিদায়ের সময় ৪৭ ওভার ৩ বলে ভারতের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ৩২৫ রান। মহেন্দ্র সিং ধোনি ৯৯ রানে অপরাজিত আছেন। নতুন ব্যাটসম্যান দিনেশ কার্তিক।

রাহুলকে থামালেন সাব্বির

সেঞ্চুরিয়ান লোকেশ রাহুলকে ফিরিয়ে বড় জুটি ভেঙেছেন পার্টটাইম স্পিনার সাব্বির রহমান। অফ স্পিনারের লেংথ বল শাফল করে লেগ সাইডে খেলতে চেয়েছিলেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান। কিন্তু ব্যাটে খেলতে পারেননি। বল তার পেছন দিয়ে গ্লাভস ছুঁয়ে স্টাম্প ভেঙে দেয়। তাতে ভাঙে ১২৮ বলে ১৬৪ রানের পঞ্চম উইকেট জুটি।

৯৯ বলে ১২ চার ও ৪ ছক্কায় ১০৮ রান করেন রাহুল। তার বিদায়ের সময় ৪৩ ওভার ২ বলে ভারতের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ২৬৬ রান। মহেন্দ্র সিং ধোনি ৬৮ রানে অপরাজিত আছেন। নতুন ব্যাটসম্যান হার্দিক পান্ডিয়া।

রাহুলের দারুণ সেঞ্চুরি

ফিফটিকে সেঞ্চুরিতে রূপান্তর করেছেন লোকেশ রাহুল। ৯৪ বলে তিন অঙ্ক স্পর্শ করতে ১২টি চারের সঙ্গে ৩টি ছক্কা হাঁকান ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান।

৪২ ওভার শেষে ভারতের সংগ্রহ ৪ উইকেটে ২৫৫ রান। রাহুল ১০০ ও মহেন্দ্র সিং ধোনি ৬৫ রানে অপরাজিত আছেন। পঞ্চম উইকেটে ১৫৩ রানের জুটিতে অবিচ্ছিন্ন আছেন এই দুজন।

ধোনির ফিফটি

লোকেশ রাহুলের মতো আক্রমণাত্মক ফিফটি করেছেন মহেন্দ্র সিং ধোনিও। ৪০ বলে পঞ্চাশ স্পর্শ করতে ৫ চার ও ২ ছক্কা হাঁকান ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান।

পঞ্চম উইকেটে এই দুজনের শতরান ছাড়ানো জুটিতে বড় সংগ্রহের পথে এগোচ্ছে ভারত। ৩৭ ওভার শেষে ভারতের সংগ্রহ ৪ উইকেটে ২২৮ রান। রাহুল ৮১ ও ধোনি ৫৮ রানে অপরাজিত আছেন।

রাহুলের আক্রমণাত্মক ফিফটি

আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে ফিফটি করেছেন লোকেশ রাহুল। ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান ৪৫ বলে ফিফটি করতে ৭ চারের সঙ্গে ছক্কা হাঁকান একটি।

রাহুলের ফিফটিতে ২৬ ওভার শেষে ভারতের সংগ্রহ ৪ উইকেটে ১৩৫ রান। রাহুল ৫১ ও মহেন্দ্র সিং ধোনি ৫ রানে অপরাজিত আছেন।

রুবেলের দ্বিতীয় শিকার শঙ্কর

বিশ্বকাপে তাকে চার নম্বরে খেলানোর কথা ভাবছে ভারত। তবে প্রস্তুতি ম্যাচে ভালো করতে পারলেন না বিজয় শঙ্কর। রুবেল হোসেনের অফ স্টাম্পের বলে ব্যাট চালিয়ে উইকেটকিপারকে ক্যাচ দেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান। ইনিংসে এটি রুবেলের দ্বিতীয় উইকেট।

৭ বলে শঙ্কর করেন ২ রান। তার বিদায়ের সময় ২২ ওভার শেষে ভারতের সংগ্রহ ৪ উইকেটে ১০২ রান। ২৫ রানে অপরাজিত আছেন লোকেশ রাহুল। তার সঙ্গী মহেন্দ্র সিং ধোনি।

সাইফউদ্দিনের শিকার কোহলি

ফিফটির পথে থাকা বিরাট কোহলিকে থামিয়েছেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। ডানহাতি পেসারের ইয়র্কার লেগ সাইডে ফ্লিক করতে গিয়ে বল মিস করেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান, এলোমেলো হয়ে যায় স্টাম্প। ইনিংসে এটি সাইফউদ্দিনের প্রথম উইকেট।

৪৬ বলে ৫ চারে কোহলি করেন ৪৭ রান। তার বিদায়ের সময় ১৮ ওভার ৪ বলে ভারতের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ৮৩ রান। লোকেশ রাহুল ৮ রানে অপরাজিত আছেন। নতুন ব্যাটসম্যান বিজয় শঙ্কর।

এসেই রুবেলের উইকেট

রোহিত-কোহলির জুটি ভাঙতে চতুর্দশ ওভারে রুবেল হোসেনকে প্রথমবারের মতো আক্রমণে এনেছিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। তৃতীয় বলেই রোহিত শর্মাকে ফিরিয়ে ৪৫ রানের দ্বিতীয় উইকেট জুটি ভেঙেছেন রুবেল। ডানহাতি পেসারের শর্ট বল পুল করতে গিয়েছিলেন রোহিত। কিন্তু বল তার ব্যাটের ভেতরের দিকে লেগে স্টাম্প ভেঙে দেয়।

৪২ বলে একটি চারে ১৯ রান করেন রোহিত। তার বিদায়ের সময় ১৩ ওভার ৩ বলে ভারতের সংগ্রহ ২ উইকেটে ৫০ রান। বিরাট কোহলি ২৩ রানে অপরাজিত আছেন। তার সঙ্গে যোগ দিয়েছেন লোকেশ রাহুল।

প্রথম উইকেট মুস্তাফিজের

ভারতীয় শিবিরে প্রথম আঘাত হেনেছেন মুস্তাফিজুর রহমান। তিনি ফিরিয়ে দিয়েছেন বাঁহাতি ওপেনার শিখর ধাওয়ানকে। বাঁহাতি পেসারের ফুল লেংথ বল লেগ সাইডে খেলতে চেয়েছিলেন ধাওয়ান। কিন্তু ব্যাটে খেলতে পারেননি, বল আঘাত হানে তার প্যাডে। বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের জোরালো আবেদনে এলবিডব্লিউয়ের জন্য আঙুল তুলে দেন আম্পায়ার।

৯ বলে ধাওয়ান করেন ১ রান। তার বিদায়ের সময় ২ ওভার ৫ বলে ভারতের সংগ্রহ ১ উইকেটে ৫ রান। ৩ রানে অপরাজিত আছেন রোহিত শর্মা। তিন নম্বরে নেমেছেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

আবার খেলা শুরু

বৃষ্টির কারণে প্রায় আধা ঘণ্টা বন্ধ ছিল খেলা। স্থানীয় সময় সকাল ১১টা ১০ মিনিটে আবার শুরু হয়েছে খেলা।

বৃষ্টি থেমেছে

বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি বৃষ্টি। স্থানীয় সময় সকাল ১০টা ৫৩ মিনিটে বৃষ্টি থেমেছে। এরপর উইকেটের কাভারও সরিয়ে ফেলা হয়েছে। আবার খেলা শুরু হবে স্থানীয় সময় সকাল ১১টা ১০ মিনিটে।

কার্ডিফে বৃষ্টির হানা

টস হওয়ার কিছুক্ষণ পর বৃষ্টি নেমেছিল কার্ডিফে। ফলে খেলা শুরু হয় নির্ধারিত সময়ের সাত মিনিট পর। তবে খেলা শুরুর পর দুই বল হতেই আবার বৃষ্টি নামে কার্ডিফে। স্থানীয় সময় সকাল ১০টা ৪২ মিনিটে খেলা তাই বন্ধ হয়ে গেছে। উইকেট কাভারে ঢেকে দেওয়া হয়েছে।

বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ হওয়ার আগে দুই বলে ভারতের সংগ্রহ বিনা উইকেটে ৪ রান। রোহিত শর্মা ৩ ও শিখর ধাওয়ান ১ রানে অপরাজিত আছেন। বাংলাদেশের হয়ে নতুন বলে বোলিং শুরু করেন মুস্তাফিজুর রহমান।

সুযোগ পাচ্ছেন বাংলাদেশের সবাই

প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচটা বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ায় স্কোয়াডে থাকা সব খেলোয়াড়কেই আজ খেলার সুযোগ দিচ্ছে বাংলাদেশ। ভারতের স্কোয়াডে থাকা খেলোয়াড়দের মধ্যে খেলবেন না শুধু কেদার যাদব। কাঁধের চোট থেকে সেরা ওঠার প্রক্রিয়ায় আছেন এই অলরাউন্ডার। চোট কাটিয়ে ফিরেছেন আরেক অলরাউন্ডার বিজয় শঙ্কর।

নিয়ম অনুযায়ী প্রস্তুতি ম্যাচে ব্যাটিং-বোলিং ১১ জন করতে পারলেও খেলতে পারেন স্কোয়াডে থাকা সবাই।

বাংলাদেশ দল

মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, লিটন দাস, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান, মোহাম্মদ মিথুন, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মেহেদী হাসান মিরাজ, মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন, আবু জায়েদ রাহী।

ভারত দল

বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), শিখর ধাওয়ান, রোহিত শর্মা, লোকেশ রাহুল, বিজয় শঙ্কর, মহেন্দ্র সিং ধোনি, দিনেশ কার্তিক, যুজবেন্দ্র চাহাল, কুলদীপ যাদব, ভুবনেশ্বর কুমার, জাসপ্রিত বুমরাহ, হার্দিক পান্ডিয়া, রবীন্দ্র জাদেজা, মোহাম্মদ শামি।

টস
টস জিতে বোলিং নিয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি জানান, টস জিতলে তিনিও বোলিং নিতেন। কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেনে ম্যাচ শুরু বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে তিনটায়।

প্রস্তুতির শেষ সুযোগ
বিশ্বকাপের আগে নিজেদের প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে ব্যাটিং ব্যর্থতায় নিউজিল্যান্ডের কাছে ৬ উইকেটে হারে ভারত। আর পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রস্তুতি ম্যাচটা বৃষ্টিতে ভেসে গেছে। মূল মঞ্চে নামার আগে বাংলাদেশ ও ভারত দুই দলের জন্যই আজকের ম্যাচটা নিজেদের ঝালিয়ে নেওয়ার শেষ সুযোগ।

২০১৭ সালে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত চ্যাম্পিয়নস ট্রফির আগেও ভারতের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছিল বাংলাদেশ। ওভালের সেই ম্যাচে ভারতের করা ৩২৪ রানের জবাবে বাংলাদেশ গুটিয়ে গিয়েছিল মাত্র ৮৪ রানে।

x

Check Also

রোজা যেভাবে আমলাকে সাহায্য করে

ক্রীড়া ডেস্ক : বিশ্বব্যাপী চলছে মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের সিয়াম-সাধনার মাস রমজান। এমন সময়ে ইংল্যান্ডে বসতে যাচ্ছে বিশ্বকাপ। যেখানে বাংলাদেশ, পাকিস্তান, আফগানিস্তানসহ বিভিন্ন দেশের মুসলিম খেলোয়াড়রা অংশ নিতে যাচ্ছেন। তাদের মধ্যে অনেকেই রোজা রেখে খেলবেন। হাশিম আমলা ...

বৃষ্টির পেটে বাংলাদেশ-পাকিস্তান লড়াই

ক্রীড়া প্রতিবেদক: টানা ১১ ওয়ানডে হারের পর বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ জিতে বিশ্বকাপের মিশন শুরু করতে চেয়েছিল পাকিস্তান। কিন্তু বেরসিক বৃষ্টির দাপটে সব ওলট-পালট হয়ে গেল। বৃষ্টিতে পন্ড বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের মধ্যকার বিশ্বকাপ প্রস্তুতি ম্যাচ। ...

বার্সেলোনার আধিপত্য ভেঙে চ্যাম্পিয়ন ভ্যালেন্সিয়া

ক্রীড়া ডেস্ক : স্প্যানিশ কোপা ডেল রের সবশেষ চার আসরের চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনা। সব মিলিয়ে ৩০ বার তারা এই শিরোপা ঘরে তুলেছে। অন্যদিকে ভ্যালেন্সিয়া মাত্র ৭বার। তাও আবার সবশেষ কোপা ডেল রের শিরোপা তারা জিতেছিল ১১ ...

শিরোনামঃ