পরীক্ষামূলক প্রকাশনা - সাইট নির্মাণাধীন

Home > শিক্ষাঙ্গন > ইবির ‘এফ’ ইউনিটের বাতিল ভর্তি পরীক্ষা ১৬ মার্চ, শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

ইবির ‘এফ’ ইউনিটের বাতিল ভর্তি পরীক্ষা ১৬ মার্চ, শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

প্রশ্নপত্র ফাঁসের দায়ে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাতিল হওয়া ‘এফ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার নতুন তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। আগামী ১৬ মার্চ সকাল ১০টায় এ ভর্তি অনুষ্ঠিত হবে। আজ মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ভর্তি কমিটির বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত  হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন বেজিষ্ট্রার এস এম আব্দুল লতিফ। এদিকে ভর্তি পরীক্ষা বাতিলের প্রতিবাদে প্রশাসন ভবনের সামনে মানবন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছ ওই ইউনিটের শিক্ষার্থীরা।

 
কেন্দ্রীয় ভর্তি কমিটি ও ক্যাম্পাস সূত্রে জানা যায়, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে ‘এফ’ ইউনিটের প্রশ্নপত্র ফাঁসের সত্যতা পাওয়ায় ওই ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা বাতিল করা হয়। সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৩৩ তম সিন্ডিকেট থেকে এ সিদ্ধন্ত গ্রহণ করা হয়। এছাড়া প্রশ্ন ফাঁসের সাথে সম্পৃক্ততা থাকার অভিযোগ শিক্ষকসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।  ‘এফ’ ইউনিটে আবারো ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণে মঙ্গলবার সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন উর রশিদ আসকারীর সভাপতিত্বে কেন্দ্রীয় ভর্তি কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে বিশ্ববিদ্যালয়ের এফ ইউনিটের বাতিলকৃত ভর্তি পরীক্ষা আগামী ১৬ মার্চ সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে বলে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। 

২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে ফলিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদভূক্ত ‘এফ’ ইউনিটে ২৯৪৪ জন ভর্তিচ্ছু আবেদন করে। এই ইউনিটে আবেদনকারী সকল ভর্তিচ্ছু ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। এছাড়া ভর্তি সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

এদিকে পুনরায় ভর্তি পরীক্ষা বাতিলের প্রতিবাদে প্রশাসন ভবনের সামনে মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে ওই ইউনিটের গনিত ও পরিসংখ্যন বিভাগে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীরা। সকাল ৯ টা থেকে মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করে তারা। মানববন্ধন চলাকালে সকাল ১০ টার দিকে শিক্ষার্থীদের একটি প্রতিনিধি দল, ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. আনোয়ারুল হক স্বপণ ও প্রক্টর অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমানের সাথে দেখা করে। শিক্ষার্থীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, যারা দুর্ণীতির মাধ্যমে ভর্তি হয়েছে, তাদের জন্য আমরা যারা নির্দোষ তারা কেন সাজা ভোগ করব। আমাদের প্রতি প্রশাসন অবিচার করছে। আমরা অধিকাংশই দ্বিতীয়বার পরীক্ষা দিয়ে চান্স পেয়েছে। পুনরায় পরীক্ষা দিয়ে ভর্তির সুযোগ না পেলে আর কোথাও ভর্তি হতে পারব না। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে,. আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের অনেকেই বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভর্তি বাতিল করে এখানে ভর্তি হয়েছেন। 

x

Check Also

প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা নিয়ে এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি’

করোনার কারণে এ বছর পিইসি বা প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা না নেয়ার প্রস্তাব দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে সারসংক্ষেপ পাঠানো হলেও এখনো এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আকরাম-আল-হোসেন। রোববার সাংবাদিকদের ...

একাদশে ভর্তির জন‌্য প্রথম ধাপে আবেদন সাড়ে ১৩ লাখ

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন‌্য প্রথম ধাপে আবেদন করেছে ১৩ লাখ ৪৩ হাজার শিক্ষার্থী। আবেদনের শেষ সময় ছিল বৃহস্পতিবার রাত ১২টা পর্যন্ত। শুক্রবার (২১ আগস্ট) ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক অধ্যাপক ড. ...

সমাপনী বাতিল হলেও দিতে হবে বার্ষিক পরীক্ষা

চলতি বছর প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) ও জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষা হচ্ছে না। একই সঙ্গে বাতিল করা হচ্ছে মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী (ইইসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা। করোনা পরিস্থিতির কারণে ...

শিরোনামঃ