পরীক্ষামূলক প্রকাশনা - সাইট নির্মাণাধীন

Home > শিক্ষাঙ্গন > রাজশাহী কলেজে আন্তঃকলেজ বিতর্কে ইস্পাহানী কলেজ কুমিল্লা চ্যাম্পিয়ন

রাজশাহী কলেজে আন্তঃকলেজ বিতর্কে ইস্পাহানী কলেজ কুমিল্লা চ্যাম্পিয়ন

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহী কলেজ মিরর ইংলিশ ডিবেটিং ক্লাবের আয়োজনে জাতীয় পর্যায়ে প্রথম আন্তঃকলেজ বিতর্ক প্রতিযোগিতা ২০১৭-এর চ্যাম্পিয়ন হয়েছে কুমিল্লা সেনানিবাসের ইস্পাহানী কলেজ ডিবেটিং দল। এবং রানার্সআপ হয়েছে মিরপুরের সরকারী বাংলা কলেজ ডিবেটিং দল।

“বঙ্গবন্ধুকে দলমত সবার হ্নদয় গহীনে স্থান করে দেওয়ার জন্যই এই বিতর্ক” এই স্লোগান সামনে রেখে রাজশাহী কলেজ অডিটোরিয়ামে শুক্রবার শুরু হওয়া দুই দিনের এই বিতর্ক প্রতিযোগিতায় দেশের সকল বিভাগ থেকে আগত সুনামধন্য সব কলেজের ২৪টি দল অংশ নেয়।

শনিবার সমাপনী অনুষ্ঠানে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার নুর-উর-রহমান ।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘আমি’কে ছাড়িয়ে ‘আমরা’য় পৌঁছে যাওয়ার পথ হলো বিতর্ক। বিতর্কের মাধ্যমে অন্যের মতামতের প্রতি আমরা শ্রদ্ধাশীল হতে শিখি। পেশি শক্তি ব্যবহার বন্ধ করে বিতর্কের মাধ্যমে দেশে অপরাধ প্রবনতা বন্ধ করে শান্তি ফিরিয়ে আনা সম্ভব।

রাজশাহী কলেজের এমন মধুর আতিথেয়তা মুগ্ধ রাজশাহীর বাইরে থেকে আসা সব কলেজের শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীরা। অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সরকারি বাংলা কলেজের শিক্ষক রাজশাহী কলেজের এমন আতিথেয়তা তার জীবদ্দশায় দেখেননি বলে উল্লেখ করেন।

তিনি বলেন সত্যি আমি এমন আতিথেয়তায় মুগ্ধ, আমি বিমোহিত। আমি জীবনেও রাজশাহী কলেজের এমন মধুর আতিথেয়তার কথা ভুলবো নাহ।

এই বর্ণাঢ্য আয়োজনের সভাপতিত্ব করেন এই দেশসেরা রাজশাহী কলেজের সুযোগ্য অধ্যক্ষ প্রফেসর হবিবুর রহমান । সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন, বিতর্ক হলো সত্য নিয়ে পক্ষ-বিপক্ষের লড়াই। এই লড়াইয়ের মাধ্যমে নিরপেক্ষ সত্য আবিষ্কৃত হয়। বিতার্কিকদের দায়িত্ব হলো এই সত্যকে ধারণ করা, প্রতিষ্ঠা করা। তিনি এই আয়োজন এত্ত সুন্দর ভাবে সম্পন্ন করার জন্য তিনি ইংরেজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. সাম্য সাথী ভৌমিকের প্রশংসা করেন।

রাজশাহী কলেজের ইতিহাসে জাতীয় পর্যায়ে এটি প্রথম এবং সব থেকে বড় বিতর্ক প্রতিযোগিতা। সংসদীয় পদ্ধতিতে এই বিতর্ক প্রতিযোগিতায় সারাদেশের সকল বিতার্কিক কে হারিয়ে শ্রেষ্ঠ বিতার্কিক নির্বাচিত হয়েছেন সরকারি দলের বিতার্কিক কুমিল্লার ইস্পাহানী স্কুল এ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী নাফিজ ফুয়াদ।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ইভেন্টে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার এবং সনদপত্র তুলে দেওয়া হয়। ক্লাবের পক্ষ থেকে কলেজের প্রাক্তন কিছু বিদায়ী সদস্যকে সম্মাননা দেওয়া হয়। জাতীয় পর্যায়ের এই বিতর্ক প্রতিযোগিতায় সঞ্চালনা করেন বাংলাদেশ ডিবেটিং ক্লাবের জয়েন্ট সেক্রেটারি মাহমুদুল আলম রাসেল।

x

Check Also

প্রাথমিক স্কুলের সভাপতিকে ডিগ্রি পাস হতে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক: সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতির শিক্ষাগত যোগ্যতা নির্ধারণ হচ্ছে। এর নূন্যতম শিক্ষাগত যোগ্যতা স্নাতক বা ডিগ্রী পাস হতে হবে। মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করতে এমন নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। সারাদেশে ...

প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা ১৭ নভেম্বর থেকে

সচিবালয় প্রতিবেদক : প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা-২০১৯ এর সময়সূচি প্রকাশ করা হয়েছে। ১৭ নভেম্বর পরীক্ষা শুরু হবে। শেষ হবে ২৪ নভেম্বর। প্রতিদিন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত পরীক্ষা হবে। ...

যৌন নিপীড়ন: খুবি ছাত্র আজীবন বহিষ্কার

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা : খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র পাপ্পু কুমার মণ্ডলকে যৌন নিপীড়নের দায়ে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবন বহিষ্কার করা হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটের ২০২তম জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ তাজউদ্দীন ...

শিরোনামঃ