পরীক্ষামূলক প্রকাশনা - সাইট নির্মাণাধীন

Home > বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি > নানা আয়োজনে পালিত হবে সাইবার সচেতনতা মাস

নানা আয়োজনে পালিত হবে সাইবার সচেতনতা মাস

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক : ‘সাইবার সুরক্ষিত দেশ গড়ার, সম্মিলিত দায়িত্ব সবার’ -এই প্রতিপাদ্যে নানা আয়োজনে বাংলাদেশে পালিত হবে ‘সাইবার সচেতনতা মাস অক্টোবর ২০১৮’। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সাইবার ক্রাইম অ্যাওয়ারনেস ফাউন্ডেশনের কার্যনির্বাহী পর্ষদের এক সভায় সম্প্রতি এই প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল সাইবার সিকিউরিটি অ্যালায়েন্স (এনসিএসএ) কর্তৃক আন্তর্জাতিক এই ক্যাম্পেইনের থিম নির্ধারণ করা হয় ‘Securing the internet is our Shared Responsibility’।

এছাড়াও মাসব্যাপী কর্মসূচিকে আরো ৪টি পৃথক প্রতিপাদ্যে ভাগ করা হয়েছে। এগুলো হলো: প্রথম সপ্তাহ (অক্টোবর ১-৭): অনলাইন সুরক্ষার চর্চা হোক আপনার ঘর থেকেই (Make Your Home a Haven for Online Safety), দ্বিতীয় সপ্তাহ (অক্টোবর ৯-১৫): সাইবার নিরাপত্তায় ক্যারিয়ার, কর্ম নিয়ে ভাবনা কী আর! (Millions of Rewarding Jobs: Educating for a Career in Cybersecurity), তৃতীয় সপ্তাহ (অক্টোবর ১৬-২২): অনলাইন সুরক্ষা নিশ্চিতে, কর্মস্থলে কাজ করবো প্রত্যেকে (It’s Everyone’s Job to Ensure Online Safety at Work), চতুর্থ সপ্তাহ (অক্টোবর ২৩-২৯): জনগুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো সুরক্ষা, নিশ্চিত করবে নিরবচ্ছিন্ন সেবা (Safeguarding the Nation’s Critical Infrastructure)।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল সাইবার সিকিউরিটি অ্যালায়েন্স (এনসিএসএ) ও হোমল্যান্ড সিকিউরিটি (ডিএইচএস)-এর নেতৃত্বে এ বছর পালিত হবে ১৫তম সাইবার সচেতনতা মাসের ক্যাম্পেইন। ধারাবাহিক কর্মসূচির অংশ হিসেবে এই ক্যাম্পেইনের অফিসিয়াল চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সাইবার ক্রাইম অ্যাওয়ারনেস (সিসিএ) ফাউন্ডেশন। এর মাধ্যমে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, সরকারি-বেসরকারি সংস্থা, কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় ও সামাজিক সংগঠনগুলোকে নিয়ে সম্মিলিতভাবে সাইবার নিরাপত্তা ও তথ্যসুরক্ষা সম্পর্কে বাংলাদেশে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য সংগঠনটি কাজ করবে।

সারা বিশ্বে প্রতি অক্টোবরে মাসব্যাপী সাইবার সচেতনতা বিষয়ক নানা কর্মসূচি বাস্তবায়ন হয়। বাংলাদেশে ২০১৬ সালে প্রথমবারের মতো আনুষ্ঠানিকভাবে এই কর্মসূচি শুরু করে সিসিএ ফাউন্ডেশন। এটি ডিজিটাল নাগরিকদের নিরাপদ থাকার এবং প্রত্যেকের ব্যক্তিগত তথ্যের সুরক্ষা নিশ্চিতে সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে সহযোগিতামূলক কর্মসূচি বাস্তবায়নের একটি উদ্যোগ। এর মাধ্যমে ডিজিটাল নাগরিকদের কাছে সাইবার সুরক্ষার প্রয়োজনীয় তথ্যগুলো পৌঁছে দেয়া হয়।

অফিসিয়াল চ্যাম্পিয়ন হিসেবে যুক্ত হয়ে অক্টোবর মাসব্যাপী সাইবার সচেতনতামূলক নানা কর্মসূচি বাস্তবায়ন করবে সিসিএ ফাউন্ডেশন। এসব কর্মসূচির বিস্তারিত তথ্য শিগগির জানানো হবে।

সিসিএ ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও কার্যনির্বাহী পর্ষদের সভাপতি কাজী মুস্তাফিজ বলেন, ‘সাইবার সচেতনতা এখন আমাদের খাওয়া-দাওয়ার মতো নিত্যপ্রয়োজনীয়। সাইবার সুরক্ষায় প্রযুক্তি ব্যবহারকারীর সচেতনতার কোনো বিকল্প নেই। আর সচেতনতা তৈরি করা আমাদের সবার সম্মিলিত দায়িত্ব। তাই আমরা এ বছর সাইবার সচেতনতা মাসের প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করেছি, ‘সাইবার সুরক্ষিত দেশ গড়ার, সম্মিলিত দায়িত্ব সবার’, যা আন্তর্জাতিকভাবে ‘Securing the internet is our Shared Responsibility’ নির্ধারণ করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের এনসিএসএ’র নির্বাহী পরিচালক রুস স্ক্র্যডার বলেন, ‘চ্যাম্পিয়ন প্রোগ্রামটি সাইবার নিরাপত্তা সচেতনতা মাসের চলমান সাফল্যের জন্য একটি শক্তিশালী ভিত্তি হিসেবে কাজ করে চলেছে। ২০১৫ সালে, ১০৫০টি সংগঠন এর অন্তর্ভুক্ত হয়েছে এবং গত বছরের তুলনায় ২১ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।’

অফিসিয়াল চ্যাম্পিয়ন হিসেবে অক্টোবর মাসব্যাপী কর্মসূচিতে সিসিএ ফাউন্ডেশন নানা কর্মসূচি বাস্তবায়নের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে। সাইবার সচেতনতা মাস সম্পর্কে আরো জানতে এবং কর্মসূচিতে অংশ নিতে ভিজিট : ccabd.org/CyberAwareMonth

x

Check Also

সর্বস্তরের শিক্ষার্থীর জন্য বিনামূল্যে ইন্টারনেট দাবি

স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসায় অধ্যয়নরত সর্বস্তরের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য বিনামূল্যে ইন্টারনেট সুবিধা দেওয়ার দাবি জানিয়েছে অভিভাবক ঐক্য ফোরাম। বৃহস্পতিবার (০৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে এক বিবৃতিতে ফোরামের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মো. জিয়াউল কবির বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদেরকে নামমাত্র মূল্যে ইন্টারনেট ...

হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট সুরক্ষার ৪ উপায়

২০০ কোটির বেশি সক্রিয় ব্যবহারকারী নিয়ে হোয়াটসঅ্যাপ নিঃসন্দেহে বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় অ্যাপ। ফলে স্বাভাবিকভাবেই এটি হ্যাকারদের লক্ষ্যবস্তুতে রয়েছে। নানা কূটকৌশলের মাধ্যমে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্ট হ্যাকের চেষ্টায় সদা তৎপর থাকে হ্যাকাররা। তবে সাইবার অপরাধীদের কবল থেকে ...

ই-ভ্যালির ব্যবসা পর্যালোচনায় ই-ক্যাবের কমিটি

ই-ভ্যালির ব্যবসা পদ্ধতি পর্যালোচনা করতে ৭ সদস্যের পর্যালোচনা কমিটি গঠন করেছে ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব)। সাম্প্রতিক সময়ে ই-ক্যাবের সদস্য প্রতিষ্ঠান ইভ্যালি সম্পর্কে পত্রিকায় প্রতিবেদন এবং বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশনের তথ্য চাওয়ার আলোকে এই কমিটি গঠন ...

শিরোনামঃ